প্রচ্ছদ » আন্তর্জাতিক » জাতিসংঘ সদর দপ্তরের সামনে উড়বে ফিলিস্তিনের পতাকা

জাতিসংঘ সদর দপ্তরের সামনে উড়বে ফিলিস্তিনের পতাকা

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ জাতিসংঘ সদর দপ্তরের সামনে অন্যসব দেশের মত এখন ফিলিস্তিনের পতাকাও উড়বে। ইসরায়েল ও যুক্তরাষ্ট্রের বিরোধিতার পরও জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের ভোটাভুটিতে এ রায় দিয়েছে সদস্য রাষ্ট্রগুলো। ফিলিস্তিনের চোখে এই ভোট তাদের সার্বভৌম রাষ্ট্রের দাবিকে আরো সুসংহত করেছে।

ফিলিস্তিনের মতো জাতিসংঘের পর্যবেক্ষক রাষ্ট্রগুলো সদর দপ্তরের সামনে পতাকা ওড়ানোর অনুমতি পাবে কি না- এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতেই গত বৃহস্পতিবার ওই ভোট হয়।

এতে ১১৯টি রাষ্ট্র ফিলিস্তিনের পক্ষে ভোট দেয়। এসব দেশের মধ্যে চীন ও রাশিয়ার পাশাপাশি ইউরোপের ফ্রান্স, সুইডেন, ইতালি, স্পেন ও আয়ারল্যান্ডের মতো দেশও আছে। যুক্তরাষ্ট্র, ইসরায়েল, অস্ট্রেলিয়া ও কানাডাসহ আটটি দেশ ভোট দেয় বিপক্ষে। আর ভোটদানে বিরত থাকে ৪৫টি দেশ।

ফিলিস্তিনের প্রধানমন্ত্রী রামি হামাদাল্লাহ বলেছেন, জাতিসংঘের পূর্ণ সদস্য হওয়ার ক্ষেত্রে এই ভোট তাদের জন্য একটি মাইলফলক হিসেবে কাজ করবে। জাতিসংঘে নিযুক্ত ফিলিস্তিনের প্রতিনিধি রিয়াদ মনসুর একই ধরনের মন্তব্য করেন। তিনি বলেন, ‘এই ভোটে ফিলিস্তিন রাষ্ট্রের দাবি আরো মজবুত হলো।’ অন্যদিকে জাতিসংঘে নিযুক্ত ইসরায়েলি দূত রন প্রোসর বলেছেন, ‘স্বাধীন রাষ্ট্র হওয়ার ক্ষেত্রে ফিলিস্তিনের একমাত্র উপায় হলো ইসরায়েলের সঙ্গে সরাসরি সমঝোতায় বসা।’ জাতিসংঘে নিযুক্ত যুক্তরাষ্ট্রের দূত সামন্ত পাওয়ার বলেন, ‘ফিলিস্তিন ও ইসরায়েলের মধ্যকার আলোচনায় পতাকা ওড়ানো কোনো সমাধান হতে পারে না।’

আগামী ২০ দিনের মধ্যে জাতিসংঘের সদর দপ্তরের সামনে ফিলিস্তিনের পতাকা ওড়ানোর সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন করতে হবে। ফিলিস্তিনি পর্যবেক্ষকরা বলছেন, আগামী ৩০ সেপ্টেম্বর জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদে যোগ দেবেন ফিলিস্তিনের প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাস। ওই সময়ই পতাকা ওড়ানো হতে পারে।

ফিলিস্তিন ছাড়াও বর্তমানে ভ্যাটিকান জাতিসংঘের পর্যবেক্ষক রাষ্ট্র। এই ভোটের ফলে তারাও এখন সদর দপ্তরের সামনে পতাকা ওড়াতে পারবে।

২০১২ সালের নভেম্বরে এক ভোটাভুটিতে জাতিসংঘের পর্যবেক্ষক রাষ্ট্রের মর্যাদা পায় ফিলিস্তিন। বর্তমানে পূর্ণ সদস্য হওয়ার জন্য কূটনৈতিক প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে তারা। ১৩৫টি দেশ ফিলিস্তিনকে রাষ্ট্র হিসেবে মেনে নিয়েছে। গত মাসে সর্বশেষ স্বীকৃতি দেয় ভ্যাটিকান।

সূত্র : বিবিসি, এএফপি।

>
বাংলা ইনিশিয়েটরে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।