প্রচ্ছদ » বাংলাদেশ » আনসারুল্লাহর হুমকি-সতর্ক পুলিশ

আনসারুল্লাহর হুমকি-সতর্ক পুলিশ

ইনিশিয়েটর ডেস্কঃ গণমাধ্যমকে দেয়া আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের হুমকিতে সতর্ক চট্টগ্রামের আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা। এ হুমকির সঙ্গে আনসারুল্লাহ বাংলা টিম জড়িত কিনা বিষয়টিও খতিয়ে দেখছে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ (সিএমপি)।

সম্প্রতি আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের ইমেইল থেকে ছয় দফা নির্দেশনা সম্বলিত একটি বার্তা চট্টগ্রামের শীর্ষ গণমাধ্যম কার্যালয়গুলোতে পাঠানো হয়। এ নির্দেশনা মানা না হলে পত্রিকায় চাকরিরত সাংবাদিক ও মালিকপক্ষকে নাস্তিক বা নাস্তিক্যবাদের সহায়ক শক্তি হিসাবে গণ্য করে সমূলে উৎপাটন করার হুমকি দেয়া হয়।

নির্দেশনায় বলা হয়,
১। সংবাদ মাধ্যম থেকে নারীদের চাকরিচ্যুত করতে হবে।

২। ইসলামবিরোধী ও নাস্তিক্যবাদী শক্তির কোনো প্রকার প্রচারণায় শামিল হওয়া যাবে না।

৩। ইসলামি সেনানিদের বিরুদ্ধে কোনো প্রকার অপপ্রচার চালানো যাবেনা।

৪।পত্রিকার বিজ্ঞাপনে নারী মডেলের ছবি ও কোনো নারীর বেপর্দা ছবি ছাপানো যাবে না।

৫। বিনোদন পাতা, নৃত্য, গীত, নাটক, সিনেমা এমন যে কোনো ইসলামি শরিয়ত বিরোধী জিনিস ছাপানো যাবে না, যা সমাজে ফিতনা ছড়ায়, যুবক-যুবতীদের মনে যৌনতা উস্কে দেয়।

৬। যে কোনো নাস্তিকের মৃত্যুর পর পত্রিকায় কোনো প্রকারের জেহাদ বিরোধী সংবাদ প্রকাশ করা যাবে না।

বার্তায় আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের সদর দপ্তর চট্টগ্রামে বলে উল্লেখ করা হয়। বার্তায় ১৯ অক্টোবর থেকেই এসব নির্দেশনা সংবাদ মাধ্যমের জন্য আইন হিসাবে কার্যকর হবে বলে হুমকি প্রদান করা হয়। এই বার্তায় র‌্যাব ও সিএমপি গণমাধ্যম কর্মী ও কার্যালয়গুলোতে বিশেষ সতর্কতা জারি করে।

এই হুমকির সঙ্গে জড়িতদের সনাক্তের কাজ চলছে উল্লেখ করে সিএমপির সহকারী কমিশনার বাবুল আক্তার জানান, আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের এ হুমকি নিয়ে পুলিশ সন্দিহান। চট্টগ্রামে আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের প্রধান সদর দপ্তর আছে বলে কোনো রকম তথ্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কাছে এ মুহুর্তে নেই।

জঙ্গি সংগঠনের তৎপরতা নিয়ে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ কাজ করছে উল্লেখ করে সিএমপি কমিশনার আব্দুল জলিল

>
বাংলা ইনিশিয়েটরে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।