প্রচ্ছদ » ক্যাম্পাস » ৭ টি সৃজনশীলেই পরীক্ষা হবে – শিক্ষামন্ত্রী

৭ টি সৃজনশীলেই পরীক্ষা হবে – শিক্ষামন্ত্রী

নিউজ ডেস্ক, বাংলা ইনিশিয়েটর, ঢাকা

1452495900এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষায় সৃজনশীল অংশের বর্ধিত প্রশ্ন কমানো হবে না। সার্কুলার অনুযায়ী সাতটি প্রশ্নই থাকবে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ।

রবিবার সচিবালয়ে শিক্ষাবিদদের সঙ্গে এক মতবিনিময় শেষে তিনি বলেন, সৃজনশীল প্রশ্নের সংখ্যা কমানো হবে না। এটা পরিবর্তনের যুক্তি, কারণ কোনোটাই নেই।

২০১৭ সাল থেকে এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষায় বহুনির্বাচনী (এমসিকিউ) পরীক্ষা ৩০ নম্বরে এবং সৃজনশীল প্রশ্ন (সিকিউ) ৭০ নম্বর করতে ১৮ সেপ্টেম্বর বিজ্ঞপ্তি জারি করে আন্তঃশিক্ষা বোর্ড পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক উপকমিটি। তবে যেসব বিষয়ে ব্যবহারিক আছে, তাতে এমসিকিউ ২৫ নম্বর, সিকিউ ৫০ নম্বর এবং ব্যবহারিক পরীক্ষা হবে আগের মতোই ২৫ নম্বরে। সে অনুযায়ী এখন সৃজনশীল অংশে প্রশ্ন হবে সাতটি, যা আগে ছিল ছয়টি। আর এমসিকিউ প্রশ্ন হবে ৩০ বা ২৫টি (৩০ শতাংশ), যা ছিল ৪০ বা ৩৫টি।

এই নির্দেশনা জারির পর ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে আন্দোলনে নামে শিক্ষার্থীরা। গত রবিবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মধুর ক্যান্টিনে এক সংবাদ সম্মেলনে আন্দোলনকারীরা শিক্ষামন্ত্রীকে আলটিমেটাম দেয়।

শিক্ষার্থীদের দাবি, ছয়টি সৃজনশীল প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার জন‌্য আগে সময় ছিল ২ ঘণ্টা ১০ মিনিট। আর এখন ২ ঘণ্টা ২০ মিনিটের মধ‌্যে সাতটি প্রশ্নের উত্তর দিতে হবে। পাশাপাশি এমসিকিউ প্রশ্নের নম্বর ৪০ থেকে কমিয়ে ৩০ করা হয়েছে। এতে তাদের ওপর চাপ বেড়ে যাবে।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, নতুন সময় বিভাজনের এই সিদ্ধান্ত ২০১৫ সালেই জানিয়ে দেওয়া হয়েছিল, সুতরাং প্রস্তুতি নেওয়ার সুযোগ তারা পেয়েছে। আগামী বছর থেকে এমসিকিউ ও রচনামূলক অংশের পরীক্ষার মধ্যে কোনো বিরতি থাকবে না জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, এতে সৃজনশীলে ছয়টির পরিবর্তে সাতটি প্রশ্নের উত্তর লেখার জন্য বাড়তি সময় শিক্ষার্থীরা পাবে।

মন্ত্রী বলেন, সকাল ১০টায় যে পরীক্ষা শুরু হবে সেই পরীক্ষার এমসিকিউ ও রচনামূলকের উত্তরপত্র পৌনে ১০টায় দেওয়া হবে। পরীক্ষা শুরুর আগে ওই ১৫ মিনিট সময় শিক্ষার্থীরা পাবে দুটি উত্তরপত্রে শিক্ষার্থী-তথ্য পূরণের জন‌্য।

>
বাংলা ইনিশিয়েটরে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।