প্রচ্ছদ » অনিয়ম » তুরাগ নদী আর আগের মতো নেই

তুরাগ নদী আর আগের মতো নেই

 নুহিয়াতুল ইসলাম লাবিব, বাংলা ইনিশিয়েটর, ঢাকা

তুরাগ নদীর বর্তমান অবস্থাটঙ্গী বাজারের পাশে যে নদীটি রয়েছে তার নাম তুরাগ নদী। কিন্তু তুরাগ নদী আর আগের তুরাগ নদী নেই। বর্তমানের তুরাগ নদীর সাথে দশ বছর আগের তুরাগ নদীর রয়েছে বিশাল তফাৎ। এখন দেখলে বোঝার কোনো উপায় নেই দশ বছর আগেই এ নদীর পানি ছিল একেবারে স্বচ্ছ। এখানেও যে জেলেরা মাছ ধরে জীবিকা নির্বাহ করতো তা এখনকার নদী দেখে মনে হতে পারে রুপকথার গল্প বলা হচ্ছে।

নাহ রুপকথার গল্প বলা হচ্ছে না একটা সময় সত্যি এ নদী আরো আট দশটা নদীর মতোই ছিল যেখানে সূর্যের রশ্মি ঝকিমিকি করতো, জেলেরা এ নদীর মাছ বিক্রি করেই তাদের সংসারের খরচ মেটাতেন।তাছাড়া নৌপথ হিসেবে বেশ সুখ্যতিও ছিল এ নদীর।

কিন্তু এ নদীর পুরোনো রুপ, ঐতিহ্য আমরাই নষ্ট করেছি। নদী বললে ভুল হবে এটি এখন রীতিমতো ডোবায় পরিনত হয়েছে। এ নদীর আশেপাশের কলকারখানাগুলোর সকল বর্জ পদার্থের গন্তব্য স্থান এ নদীতেই। তাছাড়া এ নদীর আশেপাশে যে সকল বসতি গড়ে উঠেছে সেসব মানুষদেরও দৈনন্দিন আবর্জনা সেখানে ঠাই পাচ্ছে। তাই এক যুগ আগে যে তুরাগ নদী ছিল তা এখন বুড়িগঙ্গা নদীর মতো কালো রুপ ধারণ করেছে। কিছুদিন আগের এক পরীক্ষায় দেখা গিয়েছে যে এ নদীর পানিতে অক্সিজেন একেবারেই নেই যা একটি নদীর জন্য মারাত্মক হুমকি। তাছাড়া এ নদীর পানি এখন অনেক কমে এসেছে । শীতকালে তা আরো কমে যায়।অন্য নদীগুলোর যেরকম ঢেউ লক্ষ্য করা যায় তা তুরাগ নদীতে দেখা গেলে ভুত দেখার মতোই আতঙ্কের বিষয়ে পরিনত হবে। 

আজ তুরাগ নদীর এ করুন পরিস্থিতি একমাত্র আমাদের অসচেতনতার কারণেই। কিন্তু এরকম অসচেতনতা বহাল থাকলে বাংলাদেশ যে একটি নদীমাতৃক দেশ তা নিয়েই সন্দেহ জাগবে আমাদের মাঝে । বিশ্বের কাছে আমরা আমাদের নদী নিয়ে যে গৌরব করে আসছি তা চিরতরেই হয়তো মুছে যেতে পারে।

আমাদের নদীকে বাঁচাতে হলে আমাদেরই এগিয়ে আসতে হবে । আমাদের সচেতনতাই পারে আমাদের নদীগুলোকে আগের রূপ ফিরিয়ে দিতে। তবে এ জন্য সরকারের পৃষ্ঠপোষকতাও অত্যন্ত জরুরী।

 

বাংলাইনিশিয়েটর/২৪নভেম্বর২০১৬/এসএসকে/লাবিব

>
বাংলা ইনিশিয়েটরে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।