প্রচ্ছদ » অনিয়ম » স্কুলের পাশেই ময়লার ডাস্টবিন

স্কুলের পাশেই ময়লার ডাস্টবিন

নিশাত তনিকা, বাংলা ইনিশিয়েটর, ঢাকা

ছবিঃ নিশাত তনিকা

যেকোনো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এর পরিবেশ সুন্দর ও পরিষ্কার হবে তা সকল শিক্ষার্থীই চায়। ভালো পড়ালেখার জন্য সুন্দর পরিবেশের কোনো বিকল্প নেই।

রাজধানীর স্বনামধন্য স্কুল মনিপুর উচ্চ বিদ্যালয় (মূল বালক শাখা) মিরপুর -২ এ নতুন গড়ে ওঠা ৬০ফিট রাস্তার উপরেই। ৬০ফিট রাস্তা হওয়ার পরে শিক্ষার্থীদের যাতায়াত ব্যবস্থা অনেকাংশে সহজ হলেও সুন্দর হয়নি পরিবেশ। নতুন এই রাস্তায় ইতোমধ্যেই ৭-৮টি বড় বড় ডাস্টবিন রয়েছে যার মধ্যে ৩টি একেবারেই স্কুলটির পাশে।

৬০ফিট রাস্তা হওয়ার প্রথম ১মাস রাস্তা পরিষ্কার থাকলেও বর্তমানে আর কোনো গুরুত্ব দেয়া হচ্ছেনা। সিটি কর্পোরেশন থেকে রাস্তা পরিষ্কারের জন্য বলা হলেও মাসে ১বার বা ২ বার রাস্তা পরিষ্কার করা হয়। বিদ্যালয়টির পাশেই ডাস্টবিনগুলো থেকে সবসময় গন্ধ ছড়াতে থাকে। রাস্তার প্রায় অর্ধেকটা জুড়েই ডাস্টবিন থাকায় তাদের যাতায়াতেও কষ্ট হয়। প্রতিদিন জমে থাকা ময়লার উপর দিয়ে বা পাশে দিয়ে বিদ্যালয়ে যেতে হয় তাদের।

আশেপাশে বিভিন্ন খাবারের দোকান থাকায় সেগুলো-ও স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর হয়ে উঠছে বলে দাবী করেন  অভিভাবকেরা। তাদের বক্তব্য সিটি কর্পোরেশন এর কর্মীদের মাঝে মাঝে রাস্তায় দেখা গেলেও ডাস্টবিন এর ময়লাটুকু সরানো ছাড়া রাস্তাটি একবার পরিষ্কার-ও করা হয়না। এদিকে স্থানীয় ব্যবসায়ীরা জানান রাস্তার পাশেই এমন ডাস্টবিন থাকায় তাদের রেস্টুরেন্টগুলোতেও তেমন বিক্রি হয়না। বহুবার এই ডাস্টবিনটি সরানোর জন্য অনুরোধ জানানো হলেও তা কার্যকর করার জন্য কোনো পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি।

৬০ ফিট রাস্তাটিতে বাস চলাচল নিষেধ থাকলেও বেশ কিছুদিন ধরে হঠাৎ করে ফাঁকা বাসগুলো তাদের গন্তব্যস্থলে তাড়াতাড়ি পৌঁছানোর জন্য এই রাস্তাটি ব্যবহার করে থাকে। ফলে যানজট এর সৃষ্টি হয়। যানবাহন এর শব্দে শ্রেণীকক্ষে ক্লাস নিতেও ব্যাপক সমস্যার সম্মুখীন হতে হয় বলে জানান স্কুলটির ছাত্র ও শিক্ষকগণ। তারা জানান,সকালবেলা রাস্তায় প্রচুর যানজট থাকায় শ্রেণীকক্ষে সময়মত উপস্থিত হওয়া সম্ভব হয়না।

এমনকি ফুটপাতের উপরে ছড়িয়ে ছিটিয়ে গড়ে উঠেছে বেশ কয়েকটি মুদির দোকান। এছাড়াও  ফুটপাতের উপরেই কাপড় বিছিয়ে কখনো ভাঙা ও পুরাতন ইলেক্ট্রনিক সামগ্রী থেকে শুরু করে কাপড়,হাঁড়িপাতিল বিক্রি হয়। ফলে ফুটপাত দিয়ে হাঁটাচলা করাও সম্ভব না হওয়ায় তারা মূল সড়ক ব্যবহার ব্যবহার করে।

বিদ্যালয়েরর পাশে এমন অরুচিকর পরিবেশ কখনওই কাম্য নয়। অস্বাস্থ্যকর এই পরিবেশ শিক্ষার্থীদের এবং সেখানে অবস্থানরত সবার অভিযোগের কারণ হলেও প্রায় ৪মাস ধরে এভাবেই নোংরা হয়ে আছে রাস্তাটি।

>
বাংলা ইনিশিয়েটরে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।