প্রচ্ছদ » বাংলাদেশ » মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে ছোট্ট শামীমা

মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে ছোট্ট শামীমা

  নিশাত তনিকা, বাংলা ইনিশিয়েটর, জয়পুরহাট

জয়পুরহাট জেলায় অবস্থিত কালাই থানার বানদিঘী গ্রামের শাহরুল ইসলামের মেয়ে শামীমা আক্তার (শাম্মী) প্রায় ১২দিন ধরে মৃত্যুর সাথে লড়ছে। কালাই থানারই মাত্রাই হাই স্কুলের নবম শ্রেণী হতে দশম শ্রেণীতে এবার উত্তীর্ণ হয়েছে শামীমা।

গত ২৩ই ডিসেম্বর রাতে বাবা-মা ঘুমিয়ে থাকা অবস্থায় অজ্ঞতনামা কেউ  শামীমার বাড়িতে প্রবেশ করে তার ঘরের দরজা লাগিয়ে শারীরিক নির্যাতন এর পর তাকে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা করা হয়। শামীমাকে সকাল বেলা উদ্ধার করে নিকটস্থ হাসপাতালে নেয়া হলে তার অবস্থা দেখে তাকে ফিরিয়ে দেয়া হয়। পরববর্তীতে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হলেও তার অবস্থার উন্নতি না হওয়ার তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

শামীমার চিকিৎসার জন্য যে পরিমাণ অর্থের প্রয়োজন তা তার দরিদ্র কৃষক বাবার পক্ষে যোগাড় করা সম্ভব নয়। তার চিকিৎসায় সরকারের সাহায্য চেয়ে এবং অপরাধীদের বিচার চেয়ে গত ৩১শে ডিসেম্বর মাত্রাই ইউনিয়নে মাত্রাই হাই স্কুলের সামনে চেয়ারম্যান আ.ন.ম শওকত হাবীব তালুকদার লজিক-এর উপস্থিতিতে ছাত্র-ছাত্রীরা মানববন্ধন করে। শামীমার সহপাঠীরা জানান

শামীমা অত্যন্ত মেধাবী একজন শিক্ষার্থী ছিলো। অষ্টম শ্রেণীতেও সে জিপিএ ৫.০০ পেয়েছে। তার ছোট দুই ভাই রয়েছে।শামীমাই পরিবারের বড় মেয়ে। তার বাবার স্বপ্ন ছিলো মেয়ে লেখাপড়া করে পরিবারের অভাব দূর করবে। শামীমার মা, মোছাঃ বুলি ইসলাম মানসিকভাবে সম্পূর্ণ ভেঙে পড়েছেন। শামীমা এখনো পুরো জ্ঞান ফিরে পায়নি।

১০দিন পর গতকাল ৩ই জানুয়ারি শামীমা কিছুটা অস্পষ্ট শব্দ করে শুধুমাত্র তার হাত নাড়াতে পেরেছে। শামীমা হত্যা চেষ্টার সন্দেহে ২জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।তবে শামীমা সম্পূর্ণ জ্ঞান ফিরে না পাওয়া পর্যন্ত অপরাধীদের সনাক্ত করা সম্ভব নয়। এখন পর্যন্ত তাকে হত্যার জন্য কোনো যুক্তি সংগত কারণ খুঁজে পায়নি পুলিশ কর্তৃপক্ষ। তবে তার সহপাঠীদের ধারণা প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় তার উপর এমন নির্যাতন করে হত্যার চেষ্টা করা হয়। তবে শামীমার জ্ঞান না ফেরা পর্যন্ত কারণ এবং অপরাধীদের গ্রেফতার করা সম্ভব নয়।

সকলেরই সরকারের কাছে শামীমার চিকিৎসার জন্য আর্থিক সাহায্য চেয়ে আকুল আবেদন যেন শামীমা সুস্থ হয়ে তার অপরাধীদের সনাক্ত করতে পারে।

>
বাংলা ইনিশিয়েটরে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।