প্রচ্ছদ » বাংলাদেশ » বাণিজ্য মেলা সাথির হাসির ঠিকানা

বাণিজ্য মেলা সাথির হাসির ঠিকানা

 হোসাইন কবির | বাংলা ইনিশিয়েটর |  ঢাকা

প্রত্যেক বছর ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা অনুষ্ঠিত হয়। এই বছরেও বিভিন্ন দেশের ব্যবসায়ী দের আগমনে মুখরিত ছিলো বাণিজ্য মেলার প্রান্তর।। কিন্তু সাথির চেয়ে খুশি বাণিজ্য মেলায় মনে হয় আর কেও  ছিলো না।

সাথির পূর্ণ নাম মোসা: তাসনিম সাথি। সে তার নাম টি মনে হয় একটু বেশি আনন্দ সহিত বলতে ভালবাসে। প্রতিট পথ শিশুর জীবন এর কষ্ট গুলা মনে হয় একই সূত্রে গাঁথা। দারিদ্র্যের নিষ্পেষিত লড়াই এ জীবন কে নতুন নাম দেয়ার যুদ্ধটা তাদের কোমল প্রাণে যেন  বেধে নিতে তাদের কোন মানা নেই।।

সাথি  বাণিজ্য মেলায় পানির বোতল বিক্রি করে প্রতিদিন যেই ইনকাম করে তাতে তার হাসি খেলা জীবন কেটে যায়। সাথির সাথে কথা বলে জানতে পারলাম ওর এখন সাত বছর। আমি ওকে জিঙ্গাসা করলাম দিনে কত টাকা ইনকাম হয় তোমার? এমন প্রশ্নের উত্তরে সে বলে ” ২০০ টার মত পানির বোতল বিক্রি করি”।

তাহলে তোমার লাভ হয় কত প্রশ্নে ও একটু মুচকি হাসি দেয়। ও মনে হয় আমাকে বলতে অনিচ্ছুক ছিলো । সাথি শুধু বাণিজ্য মেলা আসলে পানি বিক্রি করে, আর সাধারন দিন গুলায়  ফুল বিক্রি করে চলে । ওর পরিবার এ কে আছে বললে  বলে তিন ভাই আর ওরা তিন বোন। আর বোনদের মাঝে ও বড়, তাই নাকি ওকে পড়ালেখা করতে দেয়া হয় না। আমি একটু স্তম্ভিত হয়ে পরলাম। প্রতিটি দরিদ্র পরিবার এ কি এইটা নিয়ম হয়ে দাঁড়িয়েছে লেখাপড়া করলেই টাকা শেষ হয়ে যাবে এমন চিন্তা ধারা কবে শেষ হবে?

সাথির মত এমন আরও অনেক শিশু এই চিন্তাধারায় যুদ্ধ করছে, কবে এই চিন্তা ধারা পরিবর্তন সম্ভব হবে তা জানা নেই, কিন্তু সবার সম্মিলিত প্রচেষ্টায় এই সমস্যার অবসান নিশ্চিত হবে। “একতাই বল” এই কথাটির সঠিক সময় এখন প্রয়োগ করার।

>
বাংলা ইনিশিয়েটরে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।