প্রচ্ছদ » মুক্তমঞ্চ » সম্পাদকীয় » এটা কিন্তু একটি ধূমপানমুক্ত এলাকা!

এটা কিন্তু একটি ধূমপানমুক্ত এলাকা!

 খাতুনে জান্নাত বাংলা ইনিশিয়েটর |  ঢাকা

“ধূমপান করবেন না। ইহা একটি শাস্তিযোগ্য অপরাধ”, “ধূমপানমুক্ত এলাকা” কিংবা “No smoking” শব্দগুলো বিভিন্ন রেস্টুরেন্টে,পার্কে, শপিংমলেসহ আরও বিভিন্ন জায়গায় দেখে আমরা অভ্যস্ত। তার সাথে আরও একটা জিনিস দেখে অভ্যস্ত। সেটা হলো-এসব লেখামুক্ত স্থানে তো বটেই বরং লেখাযুক্ত স্থানেই অবাধে ধূমপান করে যাচ্ছে ধূমপায়ীরা! শুধু অবাধে না; অবাধে এবং নিশ্চিন্তমনে!

“ধূমপান একটি শাস্তিযোগ্য অপরাধ” লেখা থাকলেও আজ পর্যন্ত বাংলাদেশের ইতিহাসে কতজনকে ধূমপানের জন্য শাস্তি পেতে হয়েছে তা জানার জন্য বিশেষজ্ঞ হতে হয়না। “ধূমপানমুক্ত এলাকা” লেখা থাকা সত্ত্বেও কীভাবে নির্বিঘ্নে মানুষ সেখানে ধূমপান করে এটা জানার জন্য বরং একটু ভাবতে হয়। ধূমপানমুক্ত এলাকায় ধূমপান করলে তাকে শাস্তি পেতে হয় বলেই জানতাম। কিন্তু বর্তমানে বাংলাদেশের পরিস্থিতি অত্যন্ত হতাশাজনক অবস্থায় রূপান্তরিত হয়েছে। এই ধরণের “ধূমপানমুক্ত এলাকা”-য় গেলেও আজকাল মাদকদ্রবের ধোঁয়া সহ্য করতে না পেরে বেরিয়ে আসতে হয়।

একজন ধূমপায়ী শুধু নিজের না, সে তার পরিবেশের এবং আশেপাশের মানুষেরও চরমভাবে ক্ষতি করছে। ধূমপানের আরেক নাম মৃত্যু। ধূমপায়ীরা নিজের মৃত্যুকেই তাদের কাজের মাধ্যমে টেনে আনছে। কিন্তু তার মানে এই নয় যে তারা নিজের জীবনকে ভালোবাসেনা। আসলে মাদকদ্রব্য এমন একটি জিনিস যে এটি একবার গ্রহণ করলে মানুষ নেশাগ্রস্থ হয়ে পড়ে এবং বারবার গ্রহণ করতে চায়। এরপর আর সে চাইলেও মাদকদ্রব্য গ্রহণ করা ছাড়তে পারে না। তাই প্রতিটি শিক্ষিত সচেতন মানুষের উচিত কখনোই এই ধরণের কোন দ্রব্য গ্রহণ না করা। আর যদি কখনো করেই ফেলে আর নিজের ভুল বুঝতে পারে, তাহলে চিকিৎসকেরর সহায়তা নিয়ে পুনর্বাসন কেন্দ্রে যাওয়ার কোনো বিকল্প নেই। এতেই হয়তো সে এবং তার পরিবার মাদকের ভয়াবহ ছোবল থেকে বাঁচতে পারে।

আমাদের দেশে সাধারণত কিশোরেরা বর্তমানে মাদকের দিকে ঝুঁকে পড়ছে। কৌতুহলবশত এবং বন্ধুদের প্ররোচনায় তারা একবার এটি গ্রহণ করে ফেলার পর হয়ে পড়ছে নেশাগ্রস্থ। এটি আটকাতে হবে। দরকার প্রচুর পরিমাণে জনসচেতনতা। কিশোরেরা যাতে কোনভাবেই মাদকদ্রব্য না ছোঁয়,এটি তাদেরকে বোঝাতে হবে। আর যারা এই ভুল করেই ফেলেছে, তাদেরকে অবশ্যই ডাক্তারের সাহায্য নিতে হবে।

জীবন একটাই। এই সুন্দর জীবনে মাদকের কালো ছায়া আমরা চাই না। আর আমরা চাইনা আর কখনো কোনো “ধূমপানমুক্ত এলাকা”-র হতাশাজনক চিত্র দেখে মনে মনে দীর্ঘশ্বাস ফেলে বলতে, “এটি একটি ধূমপানমুক্ত এলাকা!”

>
বাংলা ইনিশিয়েটরে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।