প্রচ্ছদ » বাংলাদেশ » বিশ্ব শিশু ক্যান্সার দিবস আজ

বিশ্ব শিশু ক্যান্সার দিবস আজ

মেহেদী হাসান | বাংলা ইনিশিয়েটর

আজ ১৫ ফেব্রুয়ারি ‘বিশ্ব শিশু ক্যান্সার দিবস’। বিশ্বের অন্যান্য দেশের ন্যায় বাংলাদেশেও দিবসটি পালিত হয়। ক্যান্সার রোগ সম্পর্কে জনসচেতনতা সৃষ্টি এবং এই রোগ প্রতিরোধে সরকারি ও বেসরকারি উদ্যোগকে উৎসাহিত করাই মূলত দিবসটি পালনের উদ্দেশ্য ।ওয়ার্ল্ড চাইল্ড ক্যান্সারের হিসাব অনুযায়ী, বিশ্বে প্রতিবছর ২ লাখ শিশু ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়। আর এর মধ্যে মধ্যম আয়ের দেশগুলোতেই আক্রান্ত হয় শতকরা ৮০ ভাগ। এখানে ক্যান্সার আক্রান্ত শিশুদের বেঁচে থাকার হার মাত্র ৫ ভাগ। অন্যদিকে, উন্নত দেশগুলোয় এই হার শতকরা ৮০ ভাগ।

দেশে প্রায় ১৩ লাখ থেকে ১৫ লাখ ক্যানসার আক্রান্ত শিশু রয়েছে। আর মৃত্যুর হারও আশঙ্কাজনক। কেবল ২০০৫ সালেই ক্যানসারে মৃত্যুর হার ছিল ৭ দশমিক ৫ শতাংশ। বিশেষজ্ঞদের মতে, এখনই সচেতন না হলে ২০৩০ সাল নাগাদ মৃত্যুর হার দাঁড়াবে ১৩ শতাংশে।

বিস্ময়কর হলেও সত্য—শিশুদের ক্যানসার হওয়ার বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই কারণ জানা যাচ্ছে না।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, সুনির্দিষ্ট কোনও কারণও নেই। তবে, কিছু-কিছু বিষয়কে শিশুদের ক্যানসারের পেছনে দায়ী হিসেবে শনাক্ত করা হয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে, জেনিটিক্যাল কারণ, ভাইরাস, খাবারে টক্সিনের উপস্থিতি, ক্যামিকেলস, পরিবেশগত সমস্যা। তাদের মতে,  প্রাথমিকভাবে এ রোগ শনাক্ত করা গেলে বেশিরভাগ শিশুরই ভালো হওয়ার সম্ভবনা রয়েছে। শিশুদের ক্যানসার মোকাবিলায় সবার আগে সচেতনতা বাড়াতে হবে।

এদিকে, ওয়ার্ল্ড চাইল্ড ক্যানসারের হিসাব অনুযায়ী বিশ্বে প্রতিবছর ২ লাখ শিশু ক্যানসারে আক্রান্ত হয়। আর এর মধ্যে মধ্যম আয়ের দেশগুলোতেই আক্রান্ত হয় শতকরা ৮০ ভাগ। এখানে ক্যানসার আক্রান্ত শিশুদের বেচে থাকার হার মাত্র ৫ ভাগ। অন্যদিকে, উন্নত দেশগুলোয় এই বেচে থাকার হার শতকরা ৮০ ভাগ।

প্রকৃতপক্ষে শিশু ক্যান্সারের চিকিৎসা দরিদ্র দেশগুলোতেও সম্ভব এবং সাধারণ ও স্বল্পমূল্যের ওষুধ এবং চিকিৎসকদের যুগ যুগ ধরে জানা পদ্ধতিতে ৫০ থেকে ৬০ শতাংশ ক্যান্সারে আক্রান্ত শিশুর জীবন বাঁচানো যায়। সাধারন মানুষ একটু সচেতন হলেই এইই ঘাতক ব্যধি হতে মুক্তি পাওয়া যায়।তাই ক্যান্সার প্রতিরোধে ব্যপক সচেতনতা সৃষ্টি এখন সকলের দাবি ।

>
বাংলা ইনিশিয়েটরে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।