প্রচ্ছদ » আন্তর্জাতিক » ঘটন অঘটনের ৮৯তম অস্কার

ঘটন অঘটনের ৮৯তম অস্কার

প্রকাশ : ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০১৭৪:০৭:৫৬ অপরাহ্ন

[pfai pfaic=”fa fa-user fa-spin ” pfaicolr=”” ] বায়েজিদ আল মাহমুদ | বাংলা ইনিশিয়েটর

ভুলে শেষ হলো ৮৯তম একাডেমীক এওয়ার্ড।

মঞ্চ থেকে পুরষ্কার প্রদানকারী ‘ওয়ারেন বেটি’ ঘোষণা করলেন ‘লা লা ল্যান্ড’ আর পুরষ্কার জিতলো ‘মুনলাইট’। ছবিটা যে এবারের আসরের অস্কার জয় করেছে তা কেউ ই বিশ্বাস করতে চাচ্ছে না। ‘মুনলাইট’ ছবির কলাকুশলীরাও হয়তো ভাবেনি তাদের ছবি জয় করবে ৮৯তম আসরের সেরা চলচিত্র পুরষ্কার। ফেব্রুয়ারি মাসের শুরু থেকেই চারদিকে ‘লা লা ল্যান্ড’ রব উঠেছিলো। সবাই ধরেই নিয়েছিলো ‘লা লা ল্যান্ড’ ই জিতবে এবারের অস্কার। পুরষ্কার ঘোষণার সময় সেটা পরিষ্কার হয়ে গেলো যে কারো ধারণাতেই ছিলো না ‘মুনলাইট’এর কথা। সেরা পরিচালকের পুরষ্কারটা ড্যামিয়েন শ্যাজেল (লা লা ল্যান্ড) পেলেও আক্ষেপে পুড়ছেন তিনি নিশ্চিতভাবেই।

‘অ্যারাইভাল’, ‘ফেন্সেস’, ‘হ্যাকসো রিজ’, ‘হেল অর হাই ওয়াটার’, ‘হিডেন ফিগার্স’, ‘লায়ন’, ‘ম্যানচেস্টার বাই দ্য সি’ ও ‘লা লা ল্যান্ড’-কে পেছনে ফেলে শেষ দৌড়ে এগিয়ে গেল ‘মুনলাইট’।

সেরা চলচিত্রের পুরষ্কার জিতলেও মুনলাইট এর জয়জয়কার দেখা যায় নি। সেরা অ্যাডাপটেড চিত্রনাট্য এর জন্য পুরষ্কার পেয়েছেন ব্যারি জেনকিন্স (মুনলাইট)। কোনো একক ছবির একছত্র আধিপত্য দেখা যায় নি এবাবের আসরে। প্রত্যেক ছবি আর ছবির কলাকুশলীরাই কোনো না কোনো ভাবে বলতে গেলে পুরষ্কার পেয়েছেন।

সেরা অভিনেতা হয়েছেন ক্যাসি অ্যাফ্লেক (ম্যানচেস্টার বাই দ্য সি)।

সেরা অভিনেত্রী হয়েছেন এমা স্টোন (লা লা ল্যান্ড)। সেরা পার্শ্ব অভিনেতা মাহার্শেরা আলী (মুনলাইট)। সেরা পার্শ্ব অভিনেত্রীর পুরষ্কার পেয়েছেন ভায়োলা ডেভিস ‘ফেন্সেস’ ছবির জন্য।

সেরা বিদেশী ভাষার চলচিত্রের পুরষ্কার পেয়েছে ইরানের ছবি ‘দ্যা সেলসম্যান’।

সেরা মৌলিক চিত্রনাট্য ও সেরা চিত্রনাট্য (অ্যাডাপ্টেড) বিভাগে এবার অস্কার জিতল যথাক্রমে ‘ম্যানচেস্টার বাই দ্য সি’ ও ‘মুনলাইট’ ছবি দুটি।

সেরা অ্যানিমেশন মুভির জন্য পুরষ্কার জিতেছে ‘জুটোপিয়া’।

সেরা লাইভ অ্যাকশন শর্ট ফিল্ম বিভাগে পুরষ্কার পেয়েছে ‘সিং’।

সেরা অ্যানিমেশন শর্ট ফিল্ম বিভাগে ‘পাইপার’।

সেরা ডকুমেন্টারি ও.জে. ‘মেইড ইন আমেরিকা’।

সেরা ডকুমেন্টারি (শর্ট সাবজেক্ট) বিভাগে ‘দ্যা হোয়াইট হেলমেট’।

এছাড়াও সেরা সিনেমাটোগ্রাফির জন্য পুরষ্কার পেয়েছেন লাইনাস স্যান্ডগার্ন (লা লা ল্যান্ড)

সেরা অরিজিনাল চিত্রনাট্য: কেনেথ লর্নেগান (ম্যানচেস্টার বাই দ্য সি)

সেরা ফিল্ম এডিটিং: জন গিলবার্ট (হ্যাকশ রিজ)

সেরা সাউন্ড এডিটিং: অ্যারাইভাল (সিলভিয়ান বেলেমারে)

সেরা মিক্সিং: হ্যাকশ রিজ (কেভিন ও’কনেল, অ্যান্ডি রাইট, রবার্ট ম্যাকেনজি)

সেরা মেক-আপ অ্যান্ড হেয়ারস্টাইলিং: সুইসাইড স্কোয়াড

সেরা কস্টিউম ডিজাইন: ফ্যান্টাস্টিক বিস্ট অ্যান্ড হয়্যার টু ফাইন্ড দেম

সেরা প্রোডাকশন ডিজাইন: লা লা ল্যান্ড

সেরা ভিজ্যুয়াল এফেক্টস: দ্যা জাঙ্গল বুক

পুরো অনুষ্ঠানে ছিলো চোখ ধাঁধানো সব আয়োজন। সব ভালো তার শেষ ভালো যার। ভালোয় ভালোয় শেষ হলো মুনলাইটের জন্য কিন্তু অস্কারের জন্য নয়। সব ছাপিয়ে এখন আলোচনার প্রধান বিষয় ‘মুনলাইট’। চাঁদের আলোয় কি এমন যাদু করলো বিচারকদের যে ‘লা লা ল্যান্ড’ এ এমন আকৎস্মা ঝড়ে উড়ে গেলো।

বাংলা ইনিশিয়েটরে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।