প্রচ্ছদ » বাংলাদেশ » শেষ হলো ‘অমর একুশে গ্রন্থমেলা ২০১৭’

শেষ হলো ‘অমর একুশে গ্রন্থমেলা ২০১৭’

  খাতুনে জান্নাত | বাংলা ইনিশিয়েটর

প্রতিবছরের মতো এবারও ফেব্রুয়ারির ১ তারিখে শুরু হওয়া ‘অমর একুশে গ্রন্থমেলা’-র সমাপ্তি ঘটলো আজ। শেষ দিন হওয়ার কারণে মেলা শুরু হয় আজ বেলা ১১ টায়। মেলার দুটো অংশ-বাংলা একাডেমী এবং সোহরাওয়ার্দী উদ্যান-প্রথম থেকেই দুটোতেই ছিল আজ উপচে পড়া ভিড়।

আজ বিজ্ঞান বিভাগের এসএসসি পরীক্ষার শেষ দিন হওয়ায় মেলার অর্ধেক পাঠকই ছিল এসএসসি পরীক্ষার্থী। অন্যদিকে শেষ দিন হওয়ার কারণে বিভিন্ন ধরণের পাঠক এবছরের মতো শেষবারের জন্য আসে মেলায়। যার কারণে আজ ভিড় ছিল অনান্য দিনের দ্বিগুণ।

সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের এক বিক্রেতা বলেন, “তরুণদের উপস্থিতি বেশি এবার। এছাড়া সব বয়সের পাঠকও এবার বেশি এসেছে। আগেরবারের চেয়ে বেশি বই বিক্রি হয়েছে এবার।”
আরেক বই বিক্রেতা বলেন, “যতটুকু আশা করেছিলাম,এবার তার চেয়ে বেশি বই বিক্রি হয়েছে। হয়তো তুলনামূলকভাবে তা যত পাঠক সমাবেশ হয়েছে তার চেয়ে কম,তবে আগেরবারের চেয়ে অনেক বেশি।”

অন্যদিকে বাংলা একাডেমীর এক বিক্রেতা বলেন, “পুরাতন ও জনপ্রিয় লেখকদের মিডিয়া যেভাবে ফুটিয়ে তুলছে,নতুনদের সেভাবে ফুটিয়ে তুলছে না। এর কারণে নতুনেরা অবহেলিত হচ্ছে। নতুনদের বইয়ের প্রচার আরও বেশি বেশি করতে হবে এবং পাঠকদের আরও বেশি করে নতুন লেখকদের বই কিনতে হবে।”

সারা মাসজুড়েই পুরো মেলার অসংখ্য পাঠকের আকর্ষণের কেন্দ্রবিন্দু ছিল সেবা প্রকাশনী, বাতিঘর, অন্যপ্রকাশ, সময় প্রকাশনী, প্রথমা প্রকাশনী, পার্ল পাবলিকেশন্স, পাঞ্জেরী, তাম্রলিপি, অনন্যা ইত্যাদি স্বনামধন্য প্রতিষ্ঠানের স্টল। এসব স্টলের সামনে পুরো মাসজুড়ে পাঠকদের ভিড় লেগেই ছিল।

এর মধ্যে বেশিরভাগ প্রকাশনীর পাঠকপ্রিয়তার কারণ তাদের প্রকাশিত হুমায়ূন আহমেদ ও জাফর ইকবালের বই। এছাড়া পাঞ্জেরি জনপ্রিয় তাদের বিভিন্ন ধরণের কমিকস ও অনান্য বইয়ের কিশোর সংস্করণের জন্য,
বাতিঘর জনপ্রিয় তাদের মৌলিক থিমের জন্য আর সেবা জনপ্রিয় তাদের প্রকাশিত রহস্যমূলক বইগুলোর জন্য। প্রতিবারের মতো এবারও তাই এই স্টলগুলোর ভিড় সব স্টলকে ছাড়িয়ে গেছে।

এবারের বইমেলাকে কেন্দ্র করে গত বছরগুলোর মতো কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি। সুতরাং শান্তিপূর্ণভাবেই শেষ হলো এবারের ‘অমর একুশে গ্রন্থমেলা’। বইপড়ুয়াদের এখন আরও এক বছর অপেক্ষা এই মেলা ফিরে আসার।

>
বাংলা ইনিশিয়েটরে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।