প্রচ্ছদ » উড়াল » ফিচার » অসহায় বাবার ভালবাসা !

অসহায় বাবার ভালবাসা !

প্রকাশ : ১১ এপ্রিল ২০১৭১:১৮:২০ অপরাহ্ন

[pfai pfaic=”fa fa-user fa-spin ” pfaicolr=”” ] ওমর ফারুক | বাংলা ইনিশিয়েটর

কোন কাজই ছোট নয় , হোক তা প্রখর গরমে রাস্তার পাশে ইট ভাঙ্গার কাজ কিংবা এসি ঘরে বসে মানসিক কোনো কাজ । পরিবারের চাহিদার টানে ঘর থেকে সূর্য উদয় এর পর বের হয় দুই শ্রেণীর মানুষই । কিন্তু তারা সক্ষম বলে আজ তারা কাজ করছে , কিন্তু যারা কাজ করতে অক্ষম তারা কি করে ?

দেশের মোট জনসংখ্যার ১.৪ শতাংশ মানুষ প্রতিবন্ধী তারা কোন ভাবেই শারীরিক কাজ করবার সক্ষমতা রাখে না ,ঠিকভাবে তাদের যত্ন না নিলে করতে পারে না মানসিক কাজও ।কিন্তু কথায় আছে পেটের ক্ষুধা সবচেয়ে বড় ক্ষুধা । ক্ষুধার তাড়নায় তাই বের হতে হয় ঘর হতে এবং হাত পাততে হয় বহু মানুষ এর দুয়ারে ।

গাজীপুর শহরের চৌরাস্তায় প্রায় দেখা মেলে এমনই একজন অসহায় বাবার , যিনি তার জীনের ৭৩ টি বছর পার করে আজ ঘুরছে মানুষের দুয়ারে দুয়ারে । এই সম্পর্কে তাকে প্রশ্ন করা হলে সে জানায় “ আগে আমি এই কাজ করতাম না ২০১৩ সাল থেকে আমার এই নতুন জীবন শুরু, আগে আমি ছিলাম একজন মুদির দোকানি”। তবে আজ এই বয়সে কেন এই অবস্থা?  জানতে চাইলে কিছুতেই সে উত্তর দিতে রাজি হয় না । এক পর্যায়ে মন এর দুঃখ আটকে রাখতে না পেরে জানায় তার নাম “রহমত আলি” তার দুই সন্তান বড় সন্তান একটি প্রাইভেট কোম্পানিতে চাকুরি করেন, এবং ছোট ছেলে মাত্র পড়াশুনা শেষ করে বেকার ঘুরছে । বড় ছেলের এতো ভাল চাকুরী থাকার পরেও আপনার কেন এই অবস্থা জানতে চাইলে সে কিছুতেই তার চোখের পানি আটকে রাখতে পারে না। তিনি জানান বড় ছেলের স্ত্রী তাদের এক সাথে থাকা পছন্দ করেন না, তাই তারা ছেলের কথা চিন্তা করে ঘর থেকে বের হয়ে যায় । তার পর থেকে ছেলে ২ থেকে ৩ মাস পর পর তাদের খবর নিতে আসেন, কিন্তু আর্থিক ভাবে কোণো সাহায্য করেন না । অবাক করা বিষয় হল তার এই অবস্থা দেশের মানুষের কাছে তুলে ধরা হবে জানতে পেরে সে কোন ভাবেই তার ছেলের নাম বা কর্ম স্থানের ঠিকানা আমাদেরকে দিতে ইচ্ছুক হয়নি । উক্ত বেপারে তিনি বলেন “সন্তান যতই বড় হোক না কেন সন্তান সব সময় বাবা মায়ের কাছে সন্তানই থাকবে , আমি কখনই আমার সন্তান এর খারাপ চাবো না” ।

আমাদের বাবা মা আমাদেরকে উপহার দিছেন এই পৃথিবীর আলো দেখার সুখ , কিন্তু আমরা এই পৃথিবীর মোহে পড়ে ভুলে যাই তাদের অবদান,  ভুলে যাই যে আমাদেরকেও এক সময় মা কিংবা বাবা হতে হবে ।

বাংলা ইনিশিয়েটর/ ১১ এপ্রিল ২০১৭/ লাবিব/ ফারুক

বাংলা ইনিশিয়েটরে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।