প্রচ্ছদ » খেলাধুলা » শুভ জন্মদিন সরফরাজ

শুভ জন্মদিন সরফরাজ

নুহিয়াতুল ইসলাম লাবিব, বাংলা ইনিশিয়েটর

২০০৭ সালের ১৮ই নভেম্বর ভারতের জয়পুরে স্বাই মানসিং স্টেডিয়ামে তখন চলছে ভারত-পাকিস্তানের ৫ম ও শেষ ওয়ানডে ম্যাচ। কিন্তু ৪র্থ ম্যাচেই ঘটে গেছে এক অঘটন, সেবার ইনজুরির কারণে ম্যাচ থেকে ছিটকে গিয়েছিল কামরান আকমল। শেষ ম্যাচে তাহলে উইকেটের পেছনে দাঁড়ানোর কাজটি কে করবে ? এ প্রশ্ন তখন সবার মাথায় উঁকি দিলেও এ নিয়ে বেশি বেগ পেতে হয়নি পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড পিসিবিকে, আন্ডার নাইনটিনে নজরকাড়া পারফরম্যান্স করায় তাই সেবারই উইকেটকিপার হিসেবে অভিষেক হয়ে যায় বর্তমান পাকিস্তান ক্রিকেটের নির্ভারযোগ্য ব্যাটসম্যান সরফরাজ আহমেদের।

ক্যারিয়ারের শুরুটা অতোটা মধুর ছিল না পাকিস্তানি এ খেলোয়াড়ের ,জাতীয় দলে অতোটা নিয়মিত ছিলেন না বললেই চলে। তবে নিজেকে পাকিস্তান দলের সাথে একেবারে পাকাপোক্ত করে বেধেছিলেন সেই ২০১৫ সাল ক্রিকেট বিশ্বকাপ থেকে।তবে বিশ্বকপের প্রথম চার ম্যাচে খেলবার সুযোগ মেলে নি সরফরাজের। তবে টানা চার ম্যাচেই পরাজয়ের পর দলে পরিবর্তন আনে পাকিস্তান ক্রিকেট টিম আর তারই সুবাদে পঞ্চম ম্যাচে দলে ঠাই হয় সরফরাজের। সুযোগ পেয়েই তা কাজে লাগান তিনি। ব্যাটিঙে ৪৯ বলে ৪৯ করলেও মূল চমক ছিল কিপিঙে । উইকেটের পেছনে নিজের বিশ্বস্ত হাতে গুনে গুনে ছয়টি ক্যাচ তালুবন্দী করার সাথে সাথে করে ফেলেন একটি বিশ্ব রেকর্ডও কেননা এর আগে কোনো উইকেটরক্ষকই এক ম্যাচে এতোগুলো উইকেট নিতে পারেনি।

২০০৭ সালে অভিষেক হলেও এখন পর্যন্ত ওয়ানডে খেলেছেন কেবল মাত্র ৭০ টি । তবে ব্যাট হাতে নেমেছেন ৫৫ ইনিংসে। এরই মাঝে ৩৫.৬৩ গড়ে করেছেন ১৫৬৮ রান! এর মাঝে রয়েছে দুটি শতক এবং ছয়টি অর্ধশতক। তবে দুর্ভাগ্য তাঁর ,২০১৬ সালের আগস্টে নিজের ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ ১০৫ রানের ইনিংসটিতে ইংলিশদের বিরুদ্ধে হারতে হয় ৪ উইকেটের ব্যবধানে, তা না হলে তো নিজের সেরা ইনিংসটিতে পেতে পারতেন ম্যাচ সেরার পুরুষ্কারটিও।

ওয়ানডের চেয়েও নিজের ক্রিকেট মেধাটি বেশি ফুটিয়ে তুলতে পেরেছেন টেস্ট ক্রিকেটেই । ধীরস্থির হয়ে ক্রিজে আটকে থাকা তার যেন এখন এক প্রকার অভ্যাসে পরিনত হয়েছে। তাই তো মাত্র ৩৬ ম্যাচেই ৪০.৯৬ গড়ে করে ফেলেছেন ২০৮৯ রান! যার মাঝে রয়েছে তিনটি সেঞ্চুরি এবং তেরোটি অর্ধশতক !

২০১৬ সালে টি টুয়েন্টি বিশ্বকাপ শেষে আফ্রিদির পর পাকিস্তান টি টুয়েন্টি দলের ভারটি এসে পরে তাঁর কাধেই। তবে শুধু টি টুয়েন্টিই নয় এক বছর পরই পেয়ে যান ওয়ানডে দলের অধিনায়কত্বও। বর্তমান অনভিজ্ঞ পাকিস্তান দলটিকে তিনি একাই যেন টেনে চলছেন স্রোতের বিপরীতে।

১৯৮৭ সালের আজকের দিনে অর্থাৎ ২২ মে পাকিস্তানের করাচিতে জন্ম এই খেলোয়াড়ের।মূল নাম সরফরাজ হলেও সবার কাছে শফি বলেই পরিচিত তিনি। আজ নিজের ত্রিশতম বছরে পৌছেছেন ৫ ফুট ৮ ইঞ্চির এই উইকেটকিপার-ব্যাটসম্যান। জন্মদিনে তাকে জানাই আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন।

 

>
বাংলা ইনিশিয়েটরে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।