প্রচ্ছদ » খেলাধুলা » গিওনার বিরুদ্ধেই কি নিজের শেষ ম্যাচ খেলে ফেলল ফ্রান্সিস্কো টোট্টি ?

গিওনার বিরুদ্ধেই কি নিজের শেষ ম্যাচ খেলে ফেলল ফ্রান্সিস্কো টোট্টি ?

শাফিন রহমান, বাংলা ইনিশিয়েটর

 

ফুটবল ভালোবাসেন কিন্তু ফ্রান্সিস্কো  টোট্টির নাম শুনে নি এমন মানুষ খুব কম পাওয়া যাবে,   নিজের খেলার কৌশলে যেমন নাম কামিয়েছেন তার থেকে বেশি নাম কামিয়েছেন বিশ্বস্ত খেলোয়াড় হিসেবে। জীবনের সম্পুর্ন ক্যারিয়ার খেলেছেন শুধু মাত্র একটি ক্লাবের হয়েই।

বিশ্বস্ত এই খেলোয়াড়ের জন্ম হয় ১৯৭৬ সালের ২৭ সেপ্টেম্বর। তিনি ক্লাবের জন্য শুধু একজন ক্যাপ্টেনই ছিলেন না ছিলেন ক্লাবের একজন মুখ্য ব্যাক্তি হিসেবে। যেনো ক্লাবটাই তার জীবন, তার সংসার। ক্লাবের সুবিধার্থে খেলেছেন বেশ কয়েক পজিশনে। যখন প্রথম প্রথম খেলা শুরু করেন তখন সেকেন্ড স্ট্রাইকার হিসেবে খেলতেন। তবে অধিকাংশ সময় খেলেছেন এটাকিং মিড ফিল্ডার হিসেবে। ১১৯৩ সালে ২৮ মার্চ ব্রেসিয়ার বিপক্ষে প্রথম রোমার মুল টিমে জায়গা পেয়ে খেলতে যখন নামেন তখন তার বয়স মাত্র ১৬ বছর। তার ক্যারিয়ারের প্রথম গোল করেন ১৯৯৪ সালের ৪ সেপ্টেম্বর। তারপর নিজের দক্ষতার প্রমান দিয়ে ১৯৯৫ সালের দিকে একজন সেগুলার প্লেয়ারে পরিনত হন তিনি। তারপরের ইতিহাস টা শুধুই টোট্টি এবং রোমার। নিজের যোগ্যতার বলে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন বড় ক্লাবের দৃষ্টি আকর্ষন করেছে। তারাও তাকে দৃষ্টি নন্দিত অর্থ দিয়ে নিজেদের করে নিতে চাইলেও রাজি ছিলেন না এই কিংবদন্তি খেলোয়াড়।

নিজের ক্যারিয়ারের শেষ ম্যাচে গিওনার বিরুদ্ধে জেতার পর তার কিছু শেষ বাক্য বলে যান।তিনি বলেন, “মনে করেন আপনি একজন কিশোর যে কিনা খুব সুন্দর একটি স্বপ্ন দেখছে। কিন্তু আপনার মা আপনাকে ডাকতে এসেছে স্কুলে যাওয়ার জন্য। আপনি খুব করে চাচ্ছেন আবার নিজের সেই সুন্দর স্বপ্নে ফিরে যেতে কিন্তু পারছেন না, আর কখনই পারবেন না। এটা সময়, এটা স্বপ্ন না আর আপনি ফিরেও যেতে পারবেন না।আমিও পারছি না। এটি আসলেও এখন শেষ,এবং আমি আমার জার্সি এই শেষবারের মতো করে খুলছি”।

টোট্টির বিদায় হিসেবে স্টেডিয়াম অলিম্পিকোর সামনে একটি ভাস্কর্য নির্মান করে বসানো হয়। একটি প্লেন আকাশ পানে দিয়ে উড়ে যায় ‘Thank you captain’ লেখা নিয়ে। তিনি তার ক্যারিয়ার জীবনে মোট ৩০৭ টি গোল করেন। তবে এখনো সম্পুর্ন রূপে কিছু বলা যায় না যেহেতু তিনি তার অবসর কাগজ-পুস্তকে শেষ করেননি। শুধু বলেছেন এটিই ছিলো তার শেষ ম্যাচ।

 

 

>
বাংলা ইনিশিয়েটরে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।