প্রচ্ছদ » অনিয়ম » মিরপুরে রাস্তার বেহাল দশা

মিরপুরে রাস্তার বেহাল দশা

তাঞ্জিলা জান্নাত | বাংলা ইনিশিয়েটর

মিরপুর ১১ সংলগ্ন বেনারশী পল্লী থেকে তোলা । ছবিঃ বাংলা ইনিশিয়েটর

মিরপুর ১১ সংলগ্ন বেনারশী পল্লীর রাস্তায় সংস্কারের কাজের জন্য খোড়া-খুড়ি এবং সে কারণে ছড়িয়ে রাখা পাথর রাস্তায় যানবাহন এবং পথচারীদের চলাচলে ব্যাপক সমস্যা সৃষ্টি করছে। ফুটপাত যদিও পথচারীদের পথচলার জন্য, তারপরও সেখানে পাথর এবং রাস্তা সংস্কারের সামগ্রী এমনভাবে রাখা হয়েছে যে পথচারীদের ফুটপাত ছেড়ে রাস্তা দিয়ে পথ চলতে হয়। সামান্য বৃষ্টিতেই সেই রাস্তায় জমে যায় হাঁটু সমান পানি, যাতে জনগনকে পোহাতে হয় ব্যাপক ভোগান্তি।

একজন পথচারীর ভাষ্যমতে, “বর্ষার মৌসুমে বৃষ্টি হবে এইটা জানার কথা সবার। সেই বৃষ্টি কেউ আটকাবে না। কিন্তু সাধারণ মানুষের চলাচলের পথ যদি হয় বেগতিক তাহলে তা কিভাবে হয় বলুন!”

সিটি কর্পোরেশনকে এই নিয়ে অভিযোগ জানালেও তারা কাজের আশ্বাস দিয়েই চলেছে। ইতোমধ্যে অনেক স্থানের রাস্তা মেরামতের কাজ শেষ হয়েছে এবং তা সঠিকভাবে সম্পন্ন করা হয় বলে জানা যায়। এলাকার বাসিন্দাদের এই বিষয়ে জিজ্ঞেস করলে তারা জানায়, “আমরা অভিযোগ করেছি কিন্তু তাদের কথার কোনো ঠিক নাই।”

রাস্তার এই পানি জমার কারণে একটা যানবাহনও ঠিকভাবে যেতে পারে না। সবাই গর্ত এড়িয়ে চলতে গিয়ে সৃষ্টি করে এক অপ্রীতিকর জটলার। এলাকার নামকরা শাড়ির দোকানগুলোর মালিক- ম্যানেজারদদের দাবি রাস্তার কারনে এখন ক্রেতাসাধারণ আসতেও চায় না। তারা এই রাস্তায় আসতে অনেক দ্বিধাগ্রস্ত হয়। এই করনে বিপণনও কম হয়।

এই রাস্তার কারণে দূর্ভোগে পড়তে হচ্ছে এলাকার মানুষ, পথচারী এবং রাস্তায় চলা যানবাহনের চালক ও যাত্রীদেরও। অপচয় হয় তাদের মূল্যবান সময়।

>
বাংলা ইনিশিয়েটরে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।