প্রচ্ছদ » বাংলাদেশ » বিশ্ব হাতি দিবস আজ !

বিশ্ব হাতি দিবস আজ !

 সুরাইয়া আক্তার জীম | বাংলা ইনিশিয়েটর

আজ ১২ই আগস্ট, রোজ শনিবার । পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষার্থে হাতি, হাতির বিলুপ্তি রোধে সচেতনতার জন্য প্রতিবছর এ দিনেই পালিত হয়ে থাকে বিশ্ব হাতি দিবস।

বন ধ্বংস করে কৃষি জমির বিস্তার, নগরায়নসহ নানা কারণে হাতির অস্তিত্ব বিলুপ্তির পথে। এক জরিপে বলা হচ্ছে, বাংলাদেশে স্থায়ীভাবে একদিকে যেমন হাতির জন্য উপযুক্ত পরিবেশের সঙ্কট তৈরি হচ্ছে। অন্যদিকে প্রায়ই হাতির আক্রমণে প্রাণহানির ঘটনাও ঘটছে। আবার মানুষের হাতেও মারা পড়ছে হাতি।

জানা যায়, হাতির নিজস্ব বিচরণ ক্ষেত্রের ভেতরে লোকজন ঘরবাড়ী তৈরি করলেই হাতি সেগুলো ভেঙে ফেলার চেষ্টা করে আর তখনই শুধুমাত্র মানুষের সঙ্গে সংঘর্ষ বাধে হাতিদের ।তাছাড়া হাতি মানুষকে কখনো আক্রমণ করে না। আলো বা শব্দ থেকে অনেকসময় হাতির মধ্যে ভীতির সৃষ্টি হয়। তখন তারা মানুষকে আক্রমণ করতে উদ্যত হয় বলেও জানান এক কর্মকর্তা।

হাতি একটি আন্তর্জাতিক বন্যপ্রাণী সম্পদ হিসেবে বিবেচিত হয়। কলাগাছ, বাঁশ ইত্যাদি পাতা জাতীয় খাবার হাতি খায়। আর হাতি যাতে লোকালয়ে না আসে সেজন্য হাতির খাদ্যাভাব দূর করতে এসব গাছের বাগান করা বা বনাঞ্চল সংরক্ষণ করাটা অত্যন্ত দরকারি।

বন বিভাগের হিসাবে গত ১১ বছরে বাংলাদেশে শুধুমাত্র মানুষের হাতেই মারা পড়েছে ৬২ টি হাতি। আর বন বিভাগ ও প্রাকৃতিক সম্পদ সংরক্ষণবিষয়ক বৈশ্বিক সংগঠন ইন্টারন্যাশনাল ইউনিয়ন ফর কনজারভেশন অব নেচারের (আইইউসিএন) চলমান হাতি জরিপের প্রাথমিক ফলাফল বলছে, দেশে সর্বোচ্চ ২০০ হাতি রয়েছে। অথচ ২০০৪ সালের জরিপে এই হাতির সংখ্যা ছিল প্রায় ৩২৭টি। ফলে হাতির সংখ্যা বৃদ্ধিতে তাদের পরামর্শ, সকলকে সচেতন হওয়া, হাতির খাবারে ব্যাঘাত না ঘটার ব্যাপারেও সতর্ক থাকা।

>
বাংলা ইনিশিয়েটরে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।