প্রচ্ছদ » খেলাধুলা » উত্তেজনায় ভরপুর এল ক্লাসিকো তে মাদ্রিদের মুখে শেষ হাসি

উত্তেজনায় ভরপুর এল ক্লাসিকো তে মাদ্রিদের মুখে শেষ হাসি

 মো. মোস্তফা মুশফিক তালুকদার | বাংলা ইনিশিয়েটর


রবিবার রাতের ক্যাম্পে নুউয়ে এল ক্লাসিকোতে ৩-১গোলে জয় পেয়েছে রিয়েল মাদ্রিদ। চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী বার্সেলোনা আর রিয়েল মাদ্রিদের ম্যাচ বিশ্ববাসীর জন্য সবসময় থাকে অনেক বেশী আগ্রহের। সেখানে কাল ম্যাচে ছিলো শ্বাসরুদ্ধ কর উত্তেজনা।

নেইমার বিহীন বার্সার পাশাপাশি রিয়েল মাদ্রিদের ও প্রথম একাদশে ছিলনা বিশ্বসেরা ফুটবল তারকা ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো,র নাম। ম্যাচের শুরুতে বোঝা ই যায়নি। শেষে এই ম্যাচ গড়াবে এতটা উত্তেজনায়।

ম্যাচের প্রথম ১০মিনিটে প্রথম গোলের সুযোগ নষ্ট করেন লুইস সুয়ারেজ। তেমন এটাকের দেখা না পেলেও প্রথমার্ধ ছিলো হলুদকার্ডে ভরপুর। যেখানে নাম যুক্ত হয় কাসেমিরো, গ্যারেথ বেল, দানি কারভাহাল, মেসি ও জেরার্দ পিকে,র। দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই প্রথম ৫মিনিটে বার্সা,র মিডফিল্ডার পিকের ভুলে এগিয়ে যায় রিয়াল। মাঠের বাঁ দিক থেকে মার্সেলোর ক্রস সাধারণ ভাবে বিপদমুক্ত করতে গিয়ে নিজের জালে জড়িয়ে দেন স্প্যানিশ এই ডিফেন্ডার। বাকি সময়টায়ও খেলতে পারেননি নিজের সামর্থ্যমত।

এরপর ৫০-৭০ মিনিট শুধুই এটাক দেখেছে ক্যাম্প নু বাসী। বারবার অসাধারণ সব শর্ট আর ট্যাকেলের মাধ্যমেও গোলসংখ্যা বাড়িয়ে সমতায় আনতে পারছিলোনা বার্সা। সহজকিছু কিছু আক্রমণে ব্যার্থ হওয়া মেসি অবশেষে ৭৭তম মিনিটে সমতা ফেরান পেনাল্টি থেকে অসাধারণ মাপমতো কিকে নাভাসকে বিপরীত দিকে পাঠিয়ে। লুইস সুয়ারেসকে ফেলে দেওয়ার অভিযোগে নাভাসের বিরুদ্ধে দেওয়ার সিদ্ধান্তটা নিয়ে প্রশ্ন উঠতেই পারে।

তারপর শুরু হয় ম্যাচের আসল আকর্ষণ।পাল্টা আক্রমণে ইসকোর বাড়ানো বল ধরে অসাধারণ পায়ের জাদুতে পিকেকে পরাস্ত করে ডি-বক্সে ঢুকেই জোরালো শটে অবাক করিয়ে দেন কাম্প নউকে। উপরের ডান কোনা দিয়ে জালে ঢোকা বলটি ঠেকানোর কোনো উপায় জানা ছিল না বার্সা গোলরক্ষক টের স্টেগেনের। অসাধারণ গোলের মাধ্যমের নিশ্চুপ করিয়ে দেন ভক্তদের।

কিন্তু গোল উদ্যাপনের মাত্রাটা হয়ে গিয়েছিলো একটু বেশীই নিজের গোল উদ্যাপন করে জার্সি খুলে ফেলেন বিশ্বসেরা সিআরসেভেন। তাই পরে হলুদকার্ডের মুখ ও দেখতে হয়েছে তাকে। ডি-বক্সে ডাইভের অভিযোগে দুইমিনিট পর ইই রোনালদো দেখেন দ্বিতীয় হলুদ কার্ড।

রেফারির এই সিদ্ধান্ত নিয়েও বিতর্ক উঠছে। তবে লাল কার্ড দেখে মেজাজ বিগড়ে হাত দিয়ে রেফারির পিঠে ধাক্কা দেওয়ার জন্য শাস্তি পেতে পারেন চারবারের বর্ষসেরা এই রিয়েল ফরওয়ার্ড। এরপর বার্সা,র সমতা তো দূরে থাক, আরেকটি গোল হজম করতে হয়েছে কাতালান দের।

লুকাস ভাসকেসের বাড়ানো বলে মার্কো আসেনসিওর বাঁ পায়ের অসাধারণ শট জালে ঢোকে পোস্টের উপরের বাঁ পাশ দিয়ে। স্প্যানিশ এই মিডফিল্ডারকে শট নিতে বাধা দিতে ব্যার্থ হন পিকে। রিয়েল শিবিরে একজন খেলোয়াড় কম থাকার সুযোগ ও কাজে লাগানো হয়ে উঠেনি তাদের।

এই শেষগোলটি অবশ্য অনেক স্মৃতিমধুর ছিলো মাদ্রিদের আসেনসিও,র জন্য। এই ২১বছর বয়সী লা লিগা, কোপা দেল রে, চ্যাম্পিয়ন্স লিগ, উয়েফা সুপার কাপের পর এবার স্প্যানিশ সুপার কাপেও রিয়ালের জার্সি গায়ে অভিষেকে গোল পেলেন। বার্সার নিজেদের মাঠে এমন হার ব্যাথিত করেছে বার্সা সমর্থকদের। তবে ম্যাচে আনন্দেরমেলা বসেছিলো মাদ্রিদিস্তাদের মাঝে।

চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীদের নিজেদের মাঠে তাদেরকেই হারানোর ভালোই স্বাদ নিয়েছে মাদ্রিদ শিবির। এখন আবার অপেক্ষা সবার দ্বিতীয় লেগ পর্যন্ত। বার্সা কি পারবে হারের প্রতিশোধ নিতে। নাকি আবারো রিয়েলের মাঠে বিদ্ধস্ত হতে হবে কাতালানদের।

>
বাংলা ইনিশিয়েটরে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।