প্রচ্ছদ » মুক্তমঞ্চ » সম্পাদকীয় » ত্যাগ ও আত্মশুদ্ধিতে কল্যাণকর হোক আপনার ঈদ

ত্যাগ ও আত্মশুদ্ধিতে কল্যাণকর হোক আপনার ঈদ

প্রকাশ : ১ সেপ্টেম্বর ২০১৭১১:২৮:৫৮ অপরাহ্ন

সম্পাদকের কার্যালয় থেকে

প্রিয় দেশবাসী ও শিশু কিশোর বন্ধুরা, সবার ঈদ হোক আনন্দময়। আগামীকাল উদযাপিত হতে যাচ্ছে মুসলমানদের অন্যতম বৃহত্তম  ধর্মীয় উৎসব পবিত্র ঈদুল আজহা। এ উৎসবে মহান আল্লাহর সন্তুষ্টির জন্য মুসলমানরা পশু কোরবানি করে থাকে। ত্যাগের মহিমায় ভাস্বর এ উৎসব। বর্তমানে চলমান নানা ধরনের অপরাধ থেকে নিজেকে মুক্ত রাখতে এ কোরবানির ত্যাগের শিক্ষা আমরা গ্রহণ করতে পারি। নিজের ভেতর লুকিয়ে থাকা সব হিংসা-বিদ্বেষকেও আমরা কোরবানি দিতে পারি।

কোরবানির ঈদ উপলক্ষে সারা দেশে লক্ষ লক্ষ পশু কোরবানি হবে। কোরবানির পশুর উচ্ছ্বিষ্ট খাবার,বর্জ্য পদার্থ, জবাইকৃত পশুর রক্ত ইত্যাদি মিলিয়ে ঈদের দিন এক অপরিষ্কারাচ্ছন্ন, নোংরা পরিবেশের সৃষ্টি হয়। বাংলাদেশ সিটি কর্পোরেশনের যথেষ্ট নজরদাড়িতে এসব ময়লা-আবর্জনা পরিষ্কার করা হলেও অনেক সময় ব্যক্তিগত অসচেতনতার কারনে প্রায়সময় অপরিষ্কারই থেকে যায় আমাদের চারপাশের পরিবেশ। শুধু ঈদুল আজহায় নয়, সারা বছরই ব্যক্তিগত অসচেতনতার কারনে নোংরাই রয়ে যায় আমাদের আশপাশ, যা নিয়ে কখনো ভাবি নাহ। পরিষ্কার করা তো দূরের কথা আমরা এসব চিন্তাও করি নাহ। কিন্তু চিন্তা করতে হবে, করতে হবে পরিষ্কার,হতে হবে সচেতন। সময় এসেছে বদলানোর, সচেতন আমাদেরই হতে হবে। দেশ বদলানোর প্রথম পদক্ষেপ আমাদেরই নিতে হবে। দেশটা তো আমাদেরই,কেন একে নোংরা করে রাখবো? ঈদের আনন্দে মাতোয়ারা হই ঠিক আছে ,কিন্তু ভুলে যাতে না যাই, সচেতন আমাদেরই হতে হবে।

ঈদকে কেন্দ্র করে তৈরি হওয়া সম্প্রীতির বন্ধন দৃঢ় হোক। ভ্রাতৃত্ব-প্রেম-মমতা ছড়িয়ে পড়ুক হৃদয়ে হৃদয়ে। শোষণ-বঞ্চনাহীন, বৈষম্যহীন সমতার সমাজ বিনির্মিত হোক। দূর হোক অন্ধকার। উগ্রতা-জঙ্গিবাদিতা নিপাত যাক। জননিরাপত্তা নিশ্চিত হোক, স্বস্তি নেমে আসুক মানুষের প্রাণে। গণতন্ত্র বলিয়ান হোক, জাতীয় স্বার্থ সংরক্ষিত হোক। ধনী-গরিবে ঘুঁচে যাক ভেদাভেদ। বছরের প্রতিটি দিনই মানুষের মনে লেগে থাকুক খুশির জোয়ার। ঈদ হোক কল্যাণের, ঈদ হোক মমত্ববোধের এটাই আমাদের প্রত্যাশা।

সবুজ শাহরিয়ার খান
সম্পাদক
বাংলা ইনিশিয়েটর
বাংলা ইনিশিয়েটরে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।