প্রচ্ছদ » খেলাধুলা » পিসিবি-র অবহেলার প্রতিবাদ করলেন ইউনিস খান

পিসিবি-র অবহেলার প্রতিবাদ করলেন ইউনিস খান

প্রকাশ : ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৭৭:২৬:৪০ অপরাহ্ন

[pfai pfaic=”fa fa-pencil ” pfaicolr=”” ] সাব্বির রায়হান অপি | বাংলা ইনিশিয়েটর

গত মে মাসে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে অবসর নেয়ার সিদ্বান্ত নেন ইউনিস খান। কিন্তু সতীর্থদের বিদায় পেলেও পিসিবি অর্থাৎ পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড থেকে আনুষ্ঠানিক বিদায় বা সংবর্ধনা অনুষ্ঠান কিছু তখন তিনি পান নি। প্রায় চার মাস পর পিসিবি তাকে সংবর্ধনা দিতে চাইলে তা প্রত্যাখান করেন ইউনিস খান। পিসিবির এমন দায় সাড়া অনুষ্ঠানে নিজেকে জড়াতে চান না এই ডানহাতি ব্যাটসম্যান।

দীর্ঘ ১৭ বছরে পাকিস্তানের হয়ে ব্যাট হাতে ১১৮টি টেস্ট, ২৬৫টি ওয়ান ডে এবং ২৫টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচে লড়াই করেছেন ইউনিস খান। ক্যারিয়ারে দুর্দান্তসব রেকর্ডের পাশাপাশি তিন ফরমেটে যথাক্রমে করেছেন ১০০৯৯, ৭২৪৯ ও ৪৪২। টেস্টে গড় ৫২•১২। প্রথম পাকিস্তানি হিসেবে টেস্টে ১০ হাজার রান করা ইউনিস খান দেশকে জিতিয়েছেন অনেক গুরুত্বপূর্ন ম্যাচ, এনে দিয়েছেন অনেক এনেক সাফল্য। তার করা রান এবং ৩৪টি সেঞ্চুরি পাকিস্তানের টেস্ট ইতিহাসে সর্বোচ্চ। পাকিস্তানের অন্যতম এই লেজেন্ডের বিদায়তে লেজেন্ডের মতই হবার কথা। কিন্তু ঝাঁকঝমক তো দুরের কথা তাকে সংবর্ধনা দেবার বিষয়টা এতদিন অনেকটা এরিয়েই গেছে পিসিবি। আরো দুই লেজেন্ড মিসবাহ-উল-হক আর শহীদ আফ্রিদির সংবর্ধনাও বাকি রয়ে গেছে। পিসিবি তাদের সংবর্ধনা দেয়ার দায়টাও একসাথেই মিটাতে চায় বলে গুঞ্জনও উঠেছে।

পিসিবির এমন আচারনে হতাশ হলেও তা ভুলে যেতেই চান ইউনিস। তবে পিসিবির এমন আচারন নতুন নয় বলে দাবি তার। ছয়টি ডাবল সেঞ্চুরি করা ইউনিস বলেন, “ওয়েস্ট ইন্ডিজে আমি যে সংবর্ধনা পেয়েছি, সেটিই যথেষ্ট। আমার আত্মসম্মানবোধটা অনেক বেশি। এর চেয়ে বড় কিছু আছে বলে আমি মনে করি না। পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড খুব বেশি ক্রিকেটারের সঙ্গে সম্মানজনক আচরণ করেছে বলে আমি মনে করি না।” শুধু তাই নয়, তিনি যেন অনুষ্ঠানে যোগ দেন তার জন্য বড় অঙ্কের টাকার লোভও দেখিয়েছে পিসিবি। অবশ্য ইউনিসের আত্মসম্মানের কাছে অর্থের জায়গা হয়নি।

অাত্মসম্মানের কারনেই অনুষ্ঠান ইউনিস যাবেন না বলে জানিয়েছেন। “সারা দুনিয়াতে সাবেক অধিনায়ক ও দীর্ঘদিন ধরে খেলা অভিজ্ঞ খেলোয়াড়েরা আনুষ্ঠানিকতার সঙ্গে বিদায় নেন। আর পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড সংবর্ধনার আয়োজন করছে এখন। এই সংবর্ধনার কোনো মানে আমাদের কাছে নেই। সেই মে মাসে অবসর নিয়েছি। এখন এই সংবর্ধনায় অংশ নিয়ে কী লাভ। পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের একজন কর্মকর্তা আমাকে ফোন করে এই সংবর্ধনায় অংশ নেওয়ার নিমন্ত্রণ জানিয়েছেন। বলেছেন, এই অনুষ্ঠানে যোগ দিলে আমি নাকি বেশ বড় অঙ্কের টাকাই পুরস্কার হিসেবে পাব। কিন্তু আমি কখনোই টাকার পেছনে ছুটিনি।”

ইউনিস বিশ্বের একমাত্র ব্যাটসম্যান যিনি সবগুলো দেশে টেস্ট সেঞ্চুরি করেছেন। এছাড়া টেস্টের ৪র্থ ইনিংসে তার করা পাঁচটি সেঞ্চুরি বিশ্বে সর্বোচ্চ।

বাংলা ইনিশিয়েটরে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।