প্রচ্ছদ » খেলাধুলা » সাকিবের হয়ে মুখ খুললেন তামিম!!

সাকিবের হয়ে মুখ খুললেন তামিম!!

সাব্বির রায়হান অপি | বাংলা ইনিশিয়েটর

দক্ষিন আফ্রিকার সাথে টেস্ট সিরিজে সাকিবের বিশ্রাম নেয়াকে প্রশ্নবিদ্ধ করেছেন দক্ষিন আফ্রিকার সাবেক অধিনায়ক ও বর্তমানে ধারাভাষ্যকার শন পোলক। তিনি বলেন, ” সাকিব তো বিশ্রামটা এই সিরিজ শেষেও নিতে পারতেন।” কারন হিসাবে তিনি বলেন বাংলাদেশ দল পরবর্তী টেস্ট সিরিজ খেলবে দুই মাস পরে। এই সময়টাকে যদি সাকিব বিশ্রামের জন্য নির্বাচন করতেন তাহলে বাংলাদেশের এমন খারাপ অবস্থা হত না দাবি পোলকের।

টানা খেলার ফলে মানসিক ও শারীরিকভাবে অবসাদগ্রস্থ হয়ে পরেন সাকিব। তাই বোর্ডের কাছে শুধুমাত্র টেস্টে ছয় মাসের ছুটি চেয়েছিলেন সাকিব। বোর্ড আপাতত দক্ষিন আফ্রিকা সিরিজে দুই টেস্ট ম্যাচে বিশ্রাম দিয়েছে সাকিবকে। তবে বাংলাদেশ দলের প্রানকে ছাড়া বারবার হোচট খেতে হয়েছে টাইগারদের। তাই সমালোচনার তীরটা অনেকেই সাকিবের দিকে ধরছেন।সাকিবের হয় উত্তরটা দিয়ে দিলেন জাতীয় দলের সতীর্থ তামিম। মানগাউং ওভালে একটি জাতীয় পত্রিকাকে তিনি বলেন, ” একজন খেলোয়াড়ের শরীরের অবস্থা সে ছাড়া আর কেউ ভালো বোঝে না। শন পোলক বা বড় বড় ব্যক্তি যাঁরা আছেন, তাঁরা কি বলেন না বলেন ও দিয়ে আমার কিচ্ছু আসে-যায় না। সাকিব বিশ্রাম নেবে কি নেবে না, এটা সাকিব ঠিক করবে। ওর শরীর, ও যদি মনে করে ও শতভাগ দিতে পারবে না, বিশ্রাম নেওয়া উচিত।”

শুধু জবাব দিয়েই থামেননি তামিম। উদাহরন হিসাবে টেনে এনেছেন ইংল্যান্ডের অ্যান্ডারসনের নাম। তামিম বলেন, “জেমস অ্যান্ডারসন শুধু ইংল্যান্ডে খেলে কেন? এশিয়াতে আসে না কেন! বাংলাদেশে আসে না কেন! এটা নিয়ে তো কাউকে কোনো দিন প্রশ্ন করতে দেখিনি! সাকিব কী কারণে একটা সিরিজ বিশ্রাম নিল, তা নিয়ে দুনিয়ার সমস্যা হয়ে গেল। তাহলে তো এমনও বলা যায়, অ্যান্ডারসনের বল আমাদের ওখানে সুইং করবে না বলে ও আসে না। সন্দেহ নেই, সে এই সময়ের অন্যতম সেরা বোলার। তাঁর হয়তো কোনো সমস্যা ছিল বা চোট ছিল, এ কারণে আসে না। কিন্তু এটা নিয়ে তো এত কথা হয় না। তাহলে সাকিবের বিশ্রাম নিয়ে কেন?”

শুধু সাকিব নয়। দ্বিতীয় টেস্টে তামিমও ছিলেন না বাংলাদেশ দলে। কারনটা অবশ্য ইনজুরি। কিন্তু দুজনের অনুপস্থিতিতে কতটা ভোগান্তিতে পরেছে বাংলাদেশ। তা ফলাফল দেখলেই বোঝা যায়। দ্বিতীয় টেস্টে ইনিংস ব্যাবধানে পরাজয়ের লজ্জা পেয়েছে বাংলাদেশ।

>
বাংলা ইনিশিয়েটরে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।