প্রচ্ছদ » আমাদের সাহিত্য » বই পরিচিতি – অন্যজীবন

বই পরিচিতি – অন্যজীবন

প্রকাশ : ১৬ জানুয়ারী ২০১৮৯:০৬:১৬ অপরাহ্ন

খাতুনে জান্নাত

বই পরিচিতি – অন্যজীবন
লেখকঃ জাহানারা ইমাম
ধরণঃ আত্মজীবনী
প্রকাশনীঃ চারুলিপি
প্রথম প্রকাশঃ ফেব্রুয়ারি ১৯৮৫
মূল্যঃ ২০০ টাকা (বইয়ের ওপর মুদ্রিত)
পৃষ্ঠাঃ ১১২

শহীদ জননী জাহানারা ইমামকে সম্পূর্ণ ভিন্ন দিক দিয়ে দেখার জন্য কেবলমাত্র তার ‘অন্যজীবন’ বইটিই যথেষ্ট! বইটিতে যে জাহানারা ইমামকে আমরা দেখতে পাই, তার সাথে আমাদের পরিচিত শহীদ জননীর মিল নেই! বইয়ের শুরুই হয় জুড়ু নামের এক দুরন্ত কিশোরীর দুরন্তপনা দিয়ে, যা প্রথমে উত্তমপুরুষে লেখা না হলেও ক্রমান্বয়ে ‘আমি’ হয়ে উঠেছে।

বইটিতে জাহানারা ইমামের ছোটবেলা থেকে তার ইন্টারমিডিয়েট পর্যন্ত জীবনের বিভিন্ন উল্লেখযোগ্য ঘটনা দেখতে পাওয়া যায়। জুড়ু নামের দুরন্ত কিশোরী বাবার সাথে শহরে থাকতো, কিন্তু যখনই গ্রামে আসতো, তাকে আর কোথাও আটকে রাখার উপায় ছিল না! সারা পাড়া ঘোরা, পুকুরে দাপাদাপি সহ সব রকমের দুষ্টুমি সে সুনিপুণভাবে করতো! তার সাথে সাথে লক্ষ্য করা যায় তখনকার দিনের গ্রাম্য আর সমস্ত মেয়ের মতো তারও শাড়ি-গহনার প্রতি প্রবল আকর্ষণ। সুযোগ পেলেই নতুন শাড়ি-গহনা আর চুলে বিরাট খোপা বেঁধে বসে থাকতেন তিনি।

তবে তার বাবার আধুনিকতার প্রভাব তার জীবনে যে প্রবলভাবে পড়েছিলো তা বইটি পড়লে সহজেই বোঝা যায়। জুড়ুর বাবা মোটেও তার এ ধরণের সাজ পছন্দ করতেন না, তিনি মেয়েকে ‘স্মার্ট’ তৈরি করতে চাইতেন। তখনকার দিনে মেয়ে দেখতে একটু বড় হয়ে গেলেই বিয়ে দিয়ে দেয়া হতো। কিন্তু জুড়ুর বাবা বাল্যবিবাহের ঘোর বিরোধী ছিলেন। তাই তিনি পরিবার, সমাজ সবাইকে উপেক্ষা করে মেয়েকে লেখাপড়া শেখাতে থাকেন।

বইটিতে খাবার-দাবারের প্রতি জুড়ুর প্রবল আকর্ষণ টের পাওয়া যায়। বিভিন্ন খাবারের বিস্তর বর্ণনা আছে। এছাড়া শৈশবে তার আনন্দময় সময় যে নানীবাড়ি এবং দাদাবাড়িতে কেটেছে রয়েছে তারও ব্যাপক বর্ণনা।

বইটিতে খুব ধীরে ধীরে জুড়ু জাহানারা হয়ে ওঠে। ডাকনাম আর ভালো নামের যেমন পার্থক্য রয়েছে অনেক, জুড়ু আর জাহানারা ইমামের মধ্যেও রয়েছে আকাশ-পাতাল তফাত! হয়তোবা শহরে থেকে পড়াশোনা না করলে এবং বাবা এতটা আধুনিক মানসিকতার না হলে তিনি নিজেও এতদূর আসতে পারতেন না!

জাহানারা ইমাম নিজেই বলেছেন, “১৯৮৫ সালের ঢাকায় বসে যখন জীবনের প্রথম দশকের দিকে দৃষ্টি ফেরাই, বিশ্বাসই হতে চায় না সেই সময়ের আমি আর আজকের এই আমি একই ব্যক্তি।”

বইয়ের প্রথমেই আছে মুহম্মদ জাফর ইকবালের চমৎকার ভূমিকা। এছাড়া আছে একটি মেয়ের হঠাৎ বড় হয়ে ওঠার কারণে তার হুট করে পুরোপুরি ঘরবন্দী হয়ে যাওয়ার কথা, পড়াশোনায় আগ্রহ হারিয়ে ফেলেও কী করে সে আগ্রহ আবার ফিরে পেলেন সে কথা। আছে এক সর্বগ্রাহী পাঠকের গল্প, হুট করে এক ছেলের প্রেমে পড়ে যাওয়া এবং প্রেমপত্র সহ মায়ের হাতে ধরা পড়ার গল্প – সর্বোপরি জুড়ু নামের এক দুরন্ত কিশোরী থেকে জাহানারা বেগম হয়ে ওঠার গল্প। অন্যরকম জাহানারা ইমামের গল্প জানতে ‘অন্যজীবন’ বইটি পড়ে ফেলতেই পারেন!

বাংলা ইনিশিয়েটরে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।