প্রচ্ছদ » খেলাধুলা » সর্বোচ্চ ছক্কার রেকর্ড গড়া ম্যাচে চেন্নাইয়ের জয়!!

সর্বোচ্চ ছক্কার রেকর্ড গড়া ম্যাচে চেন্নাইয়ের জয়!!

প্রকাশ : ২৬ এপ্রিল ২০১৮১:১৮:১১ পূর্বাহ্ন

সাব্বির রায়হান অপি | বাংলা ইনিশিয়েটর

আইপিএলে এর আগে এক ম্যাচে সর্বোচ্চ ছয়ের সংখ্যা ছিল ৩১টি। ২০১৭ সালে গুজরাট-দিল্লি ম্যাচের নামে ছিল রেকর্ডটি। আজ চেন্নাই-হায়াদ্রাবাদ রেকর্ডটি ভেঙ্গে ৩৩-য়ে পৌছে যায়। শুরুটা করেছিলেন দুই পোর্টিয়া ডি কক আর আর ডি ভিলিয়ার্স। আর শেষটা করলেন দুই ভারতীয় রায়ডু-ধোনি।

ব্যাটিংটাই দলের মূল শক্তি। তার প্রমান দিলো ব্যাঙ্গালুরু টপ অর্ডার। কোহলি ইনিংসটা বড় করতে না পারলেও ডি কক আর ডি ভিলিয়ার্স দারুন শুরু এনে দেয় রয়েল চ্যালেঞ্জার্সকে। ৩৭ বলে ৫৩ রান ডি ককের আর মাত্র ৩০ বলে ৬৮ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলেন মিস্টার ৩৬০ ডিগ্রি ডি ভিলিয়ার্স। দুই পোর্টায়ায যখন বড় স্বপ্ন দেখছিল আরসিবি তখনই ধস নামে। ১৪তম ওভারে ব্রাভো ফেরান ডি কককে। পরের ওভারেই এবি ও এন্ডারসনকে ফিরিয়ে জোড়া আঘাত করেন ইমরান তাহির।

এরপর মান্দিপ শর্মা ও ডি গ্রান্ড হোম জুটি মেরামতের চেষ্টা করলেও তা সফল হয় নি। ঠাকুরের বলে মান্দিপ বিদায় পরের ওভারেই দুই বলে বিদায় গ্রান্ডহোম ও নেগি। শেষ সময়ে ওয়াসিংটন সুন্দরের ক্যামিওতে ২০৫ রান করে ব্যাঙ্গালুরু। চেন্নাইয়ের হয়ে ২টি করে উইকেট নেন ইমরান, ব্রাভো ও ঠাকুর।

আজকালের টিটোয়েন্টিতে ২০৬ রানের লক্ষ কঠিন কিছু নয়। তবে তার জন্য প্রয়োজন একটা দারুন শুরুর। যেটা পায়নি সুপার কিংসরা। শুরুতেই নেগির বলে বোল্ড হয়ে বিদায় নেন ওয়াটসন। এরপর রাইনা, ব্লিংস, জাদেজা কেউ ধোনির আস্থার প্রতিদান দিতে পারে নি। উপায় না পেয়ে এবার নিজেই নামেন। কেন ধোনিকে “বেস্ট ফিনিসার” বলা হয় তা আরেকবার দেখলো ক্রিকেট বিশ্ব। চাপের মুখে রায়ডুকে নিয়ে দারুন জুটি গড়েন তিনি। দুইজনের আক্রমনাত্মক ব্যাটিং আবার চেন্নাইকে ফিরিয়ে আনে চালকের আসনে। নেগির এক ওভারে দুজন ৩টি ছক্কা মেরে তুলে নেন ১৯ রান।

নিখুদ ব্যাটিংয়ের মাঝে হঠাৎ ভূল বোঝাবুঝিতে রান আউট হন রায়ডু। ৫৩ বলে ৮২ রানের শ্বাসরূদ্ধকর ইনিংস খেলেন তিনি। ৮টি ছক্কার সাথে ৩টি চার মেরেছেন। এবার মাঠে আসে ব্রাভো। বাকি কাজটা মোটেও সহজ ছিল না। তবে ১৯ তম ওভারে ৩টি ওয়াইডসহ ১৪ রান দিয়ে কাজটা সহজ করে দেন সিরাজ। শেষ ওভারে বল করতে আসেন এন্ডারসন। জয়ের জন্য চাই ১৬ রান। প্রথম তিন বলে ৪, ৬, ১রান তুলেন ব্রাভো। শেষের তিন বলে ৫ রান প্রয়োজন ছিল। প্রথম বলেই ছক্কা মেরে ম্যাচ নিজেদের করে নেন হলুদ জার্সিরা।

৫ উইকেটে জয় পায় চেন্নাই সুপার কিংস। যা ছিল চেন্নাইয়ের সর্বোচ্চ রান তাড়া করার রেকর্ড। ৭ ছক্কা ও ১ চারে ৩৪ বলে ৭০ রানের ইনিংসের ফলে ম্যাচ সেরা ধোনি। অন্যদিকে এই ম্যাচ দিয়ে অরেঞ্জ ক্যাপ পান রায়ডু (সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক)। ৬ ম্যাচে ৫ জয়ে, ১০ পয়েন্ট নিয়ে তালিকার শীর্ষে চেন্নাই। আর সমান ম্যাচে ৪ পয়েন্ট নিয়ে ষষ্ঠ ব্যাঙ্গালুরু।

বাংলা ইনিশিয়েটরে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।