প্রচ্ছদ » অনিয়ম » দেশের ফুট ওভারব্রিজগুলো ব্যবহারে নাগরিকদের অনীহা কেন?

দেশের ফুট ওভারব্রিজগুলো ব্যবহারে নাগরিকদের অনীহা কেন?

প্রকাশ : ২৮ এপ্রিল ২০১৮৮:৪৬:০২ অপরাহ্ন

অহিদা আক্তার ফাবিয়া | বাংলা ইনিশিয়েটর

ফুট ওভারব্রিজ বা পথচারী পারাপারগুলো নির্মাণ করা হয়ে থাকে মানুষের সুবিধার জন্য। কিন্তু এই ওভারব্রিজগুলোর পরিবেশের কারণে অনেকেই এগুলো ব্যবহার না করেই সরাসরি রাস্তা পারাপার করে থাকেন। যার ফলে মানুষের জীবনযাত্রার উপরও ঝুঁকি পড়ছে।

চিত্রটি মিরপুর-২ নম্বর ফুট ওভারব্রিজের। এ ওভারব্রিজটি মিরপুর মডেল থানার পাশেই অবস্থিত। তবে এ ওভারব্রিজটির পরিবেশ মোটেও চলাচলেরর উপযোগী নয়। এখানে রয়েছে বিভিন্ন ছিন্নমূল মানুষের বাস যারা ভিক্ষাবৃত্তি করে থাকে। যার ফলে অনেক মানুষ তাদের দ্বারা প্রতারিতও হয়ে থাকেন। একজন পথচারীর সাথে কথা বললে তিনি জানান, “ওভারব্রিজগুলোতে তো ছিন্নমূল মানুষরা ব্যবসা শুরু করে দিয়েছে। অনেক সময় পকেটমারেরও ঘটনা ঘটে থাকে। এর চেয়ে এমনি রাস্তা পারাপার করাই ভালো।”

এছাড়াও অনেক ফুট ওভারব্রিজের রাস্তায় ময়লা- আবর্জনা থাকার কারণেও অনেকে এগুলো ব্যবহার করতে চান না। আবার এই ওভারব্রিজগুলোতে অনেক মাদকসেবী রয়েছেন বলে দাবি করেন অনেক পথচারী। অন্য এক পথচারীর সাথে কথা বললে তিনি জানান, “দিনের বেলা অনেক বখাটে ছেলেরা মেয়েদের উত্ত্যক্ত করে থাকে। যার ফলে অনেক মেয়েরাই এটি ব্যবহারে অনীহা প্রকাশ করে থাকে।”

এ বিষয়ে একজন পুলিশ কর্মকর্তার সাথে কথা বললে তিনি জানান, “ফুট ওভারব্রিজগুলো বর্তমানে অতোটা ব্যবহার না করার কারণে এটা নিয়ে খুব একটা চিন্তাভাবনা করা হয় না।”
তবে তারা এ বিষয়ে অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নিবেন বলে জানান।

এটি শুধু মিরপুরের নয় বরং সারা দেশের ওভারব্রিজগুলোর চিত্র। যার কারণে অনেকেই এগুলো ব্যবহারে সচেষ্ট নন।

যথাযথ সরকারি,বেসরকারি ও নাগরিকদের মিলিত প্রচেষ্টার দ্বারাই এই সমস্যা সমাধান করা সম্ভব বলে মনে করছেন অনেকে।

বাংলা ইনিশিয়েটরে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।