প্রচ্ছদ » বাংলাদেশ » অস্থিতিশীল পান বাজার : সমাধান হতে পারে দ্রুতই!

অস্থিতিশীল পান বাজার : সমাধান হতে পারে দ্রুতই!

প্রকাশ : ৭ মে ২০১৮২:৩১:৪৫ অপরাহ্ন

সামি আল সাকিব | বাংলা ইনিশিয়েটর

গত বছরের মাঝ থেকেই হুট করে অস্বাভাবিক হারে দাম বৃদ্ধি পেয়েছে দেশের রাজশাহীর এবং ভারতীয়সহ সব ধরনের পানের দাম। ফলে ভোজনরসিক সহ বয়োবৃদ্ধ বাঙালির অত্যন্ত সৌখিন খাবার “পান” যেখানে পূর্বে খুচরা পর্যায়ে বিরা প্রতি বিক্রি হতো ১০০-১৫০ টাকায় (রাজশাহী) করে এখন তা বিক্রি হচ্ছে ৩০০-৪০০ টাকায়। ফলে ভোজনরসিক এবং নিয়মিত পান ভক্ষণকারী সহ খুচরা বিক্রেতাদের মাঝে দেখা দিয়েছে তীব্র ক্ষোভ ও ব্যবসায় ক্ষতি হবার শঙ্কা।

হুট করে এতোটা অস্বাভাবিক হারে পানের দাম বৃদ্ধি পাওয়ার পেছনের কারণ অনুসন্ধানে গেলে রাজধানীততে পানের অন্যতম বৃহৎ আড়ৎ শ্যামবাজারের এক আড়তদার জানান, গত বছরের ভয়াবহ বন্যা, অতিবৃষ্টি এবং বিরূপ আবহাওয়ার দরুন বিগত বছরের তুলনায় এ বছর পানের ফলন এমনিতেই অনেক কম হয়েছে। তারসাথে যোগ হয়েছে ভয়াবহ ভাইরাসের আক্রমণ। ফলে পরিপক্ব হবার আগেই পচে নষ্ট হয়ে যাচ্ছে গাছসহ পান। এছাড়াও যেগুলো কিছুটা ভালো অবস্থায় পাওয়া যাচ্ছে সেগুলোও দূরবর্তী স্থানে পরিবহনে দীর্ঘ সময় লাগায় পচে যাচ্ছে।

সবমিলিয়ে আড়তগুলোয় দেখা দিয়েছে তীব্র পানের সংকট। আর এ সুযোগে পান ব্যবসায়ীদের একটি অসাধু মহল অন্যায্যভাবে পান মজুদসহ অসাধুভাবে পানের দাম বৃদ্ধি করে দিয়েছে কয়েকগুণ। তিনি আরও জানান, বর্তমানে বাজারে ভারতীয় পানের ভালো সরবরাহ থাকায় পানের বাজার কিছুটা নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। তবে এর বিরূপ প্রভাবে পুনরায় ক্ষতির মুখে পড়ছেন দেশীয় পান চাষকারীরা।

কবে নাগাদ পানের বাজার স্বাভাবিক হবে জানতে চাইলে এই আড়তদার আশার বাণী শুনিয়ে জানান, এ বছর আবহাওয়া অনুকূল ও গতবছরের বন্যায় মাটির উর্বরতা বৃদ্ধি পাবার ফলে এ বছর পানের বাম্পার ফলন হচ্ছে এবং আগামী দু’এক মাসের মধ্যেই পানের বাজার স্বাভাবিক হবে বলে তার ধারণা।

বাংলা ইনিশিয়েটরে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।