প্রচ্ছদ » খেলাধুলা » দিল্লির মাঠে দিল্লিকে হারালেন কোহলি-ডি ভিলিয়ার্স!

দিল্লির মাঠে দিল্লিকে হারালেন কোহলি-ডি ভিলিয়ার্স!

প্রকাশ : ১৩ মে ২০১৮১:১৪:৪১ পূর্বাহ্ন

সাব্বির রায়হান অপি | বাংলা ইনিশিয়েটর

পয়েন্ট টেবিলে নিচের দুই দলের লড়াই। দুই দলেরই শিরোপার স্বপ্ন প্রায় শেষ। তবুও শেষ সম্মানটুকু অর্জনের লড়াইয়ে দিল্লির ফিরজ শাহ কোটলায় মাঠে নামে দিল্লি ডেয়ারডেভিলস ও রয়েল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গলুরু।

টসে জিতেছেন ব্যাঙ্গলুরু অধিনায়ক বিরাট কোহলি। সিদ্ধান্ত নেন আগে ফিল্ডিং করবেন। পরিকল্পনাটা কাজেও লাগে। প্রথম ওভারেই পৃথিবীকে ফেরান যুজবেন্দ্র চাহাল। তার মাঝের স্টাম্পে গুড লেংথে করা বলটিকে ফ্লিক করতে গিয়ে বোল্ড হন ২ রান করা পৃথিবী। আরেকটি ম্যাচে সুযোগ পেয়েও ব্যার্থ জেসন রয়। তৃতীয় ওভারেই ফেরেন ৯ বলে ১২ রান করে। সেই যুজবেন্দ্র চাহালের বলেই বোল্ড হয়েছেন এই ইংলিশ ব্যাটসম্যান। এরপরের জুটিতেই ঝড় তুলেন রিসাব পান্ত ও শ্রেয়াস আইয়ার। চালকের আসনে রিসাব, সহযোগিতা করেছেন শ্রেয়াস।

১৩তম ওভারের মঈন আলির শেষ বলটি মাঝের স্টাম্পে গুড লেংথের ছিল। সেই বলটিকে ফ্লিক করার চেষ্টা করেছিলেন রিসাব কিন্তু লং অনে থাকা ডি ভিলিয়ার্সের হাতে ধরা পরে যান। ৩৪ বলে ৬১ রানের ঝড় তোলা ইনিংসে ৫টি বাউন্ডারি ও ৪টি ওভার-বাউন্ডারি ছিল। সঙ্গি শ্রেয়াসও ছিলেন না বেশি সময়। ১৬তম ওভারে সিরাজের বলে সুইপ করতে গিয়ে লং অনে বিরাট কোহলির হাতে ধরা পরেন ৩৫ বলে ৩২ রান করে। শেষে আভিষেক শর্মার ১৯ বলে ৪৬ রানের অপরাজিত ক্যামিওতে ১৮১ রানের সংগ্রহ পায় দিল্লি ডেয়ারডেভিলস। দুর্দান্ত এই ইনিংসে ছিল ৩টি চার ও ৪টি ছক্কা। সাথে বিজয় শংকরের ২০ বলে ২১ রানে ‘সাপোর্টিং’ ইনিংস গুরুত্বপূর্ন অবদান রাখে।

১৮৭ রানের বিশাল লক্ষ তাড়া করতে নেমে শুরুতেই একের পর এক ধাক্কা খেতে থাকে ব্যাঙ্গলুরু। দ্বিতীয় ওভারে ট্রেন্ট বোল্টের প্রথম বলেই পৃথিবীকে ক্যাচ দেন মঈন আলি। পরের ওভারের চতুর্থ বলে সন্দিপ লামিচেনের বলে এলবিডব্লিউ হয়ে ফেরেন ৬ রান করা পার্থিব পাটেল। এরপর দলের হাল ধরেন ব্যাঙ্গলুরুর দুই ব্যাটিং স্তম্ভ বিরাট কোহলি ও এবি ডি ভিলিয়ার্স। দুইজনের ১১৮ রানের জুটিতে জয়ের কাছাকাছি চলে যায় ব্যাঙ্গলুরু। ৪০ বলে ৭ চার ও ৩ ছয়ে ৪০ বলে ৭০ রান করেন বিরাট কোহলি। এই দুর্দান্ত ইনিংসের মৃত্যু হয় ১৪তম ওভারে অফ স্টাম্পে করা অমিত মিশ্রার গুড লেংথ বলটিতে কট বিহাইন্ড হয়ে।

কোহলি না থাকলেও শেষ পর্যন্ত ছিলেন ডি ভিলিয়ার্স। ৪টি চার ও ৬টি ছয়ে ৩৭ বলে অপরাজিত ৭২ রান করেন ডি ভিলিয়ার্স। তার আগে ১৭তম ওভারের প্রথম বলে মান্দিপ সিংয়ের উইকেট ভেঙ্গে দেন ট্রেন্ট বোল্ট। পরের ওভারেই ১১ রান করা সরফরাজকে পৃথিবীর তালুবন্ধি করেন হার্সাল পাটেল। ৫ উইকেটের এই জয়ে একটু হলেও হাসি ফুঁটবে ব্যাঙ্গলুরু অধিনায়কের। শেষ পর্যন্ত থেকে দলকে জেতানোর কারনে এবি ডি ভিলিয়ার্স হন ম্যাচ সেরা।

আগামিকাল বাংলাদেশ সময় বেলা ৪ট ৩০ মিনিটে পুনেতে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষ দুই দল সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদ ও চেন্নাই সুপার কিংস মুখোমুখি হবে। দ্বিতীয় ম্যাচে মুখোমুখি হবে রাজস্থান রয়েলস ও মুম্বাই ইন্ডিয়ানস। মুম্বাইয়ে ম্যাচটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা ৮টা ৩০ মিনিটে।

বাংলা ইনিশিয়েটরে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।