প্রচ্ছদ » খেলাধুলা » রাজস্থানকে হারিয়ে প্লে-অফ খেলার স্বপ্ন দেখছে কলকাতা!

রাজস্থানকে হারিয়ে প্লে-অফ খেলার স্বপ্ন দেখছে কলকাতা!

প্রকাশ : ১৬ মে ২০১৮১:০৫:৪৪ পূর্বাহ্ন

সাব্বির রায়হান অপি | বাংলা ইনিশিয়েটর

ম্যাচের আগে দুদলেরই পয়েন্ট ছিল ১২। তাই প্লে-অফ খেলার সম্ভাবনা দুই দলেরেই সমান ছিল। তবে ঘরের মাঠে জয় তুলে নিয়ে প্লে-অফ খেলার লড়াইয়ে অনেকটাই এগিয়ে গেছে কলকাতা নাইট রাইডার্স। টসে জিতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয় রাইডার্স অধিনায়ক দিনেশ কার্তিক।

ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুটা ভালই করে ছিল রাজস্থান। জস বাটলারের সাথে ইনিংস শুরু করতে রাহুল ত্রিপাঠি। প্রথম ওভারের প্রথম বলেই এজ হয়েও, একটুর জন্য বেঁচে যান রাহুল ত্রিপাঠি। জীবন পেয়ে প্রাসিধের দ্বিতীয় ওভারে ১ ছয় ও ৩ চারে ১৮ রান তোলেন ত্রিপাঠি। পরের ওভারে আরো ভয়ানক রূপ নেন বাটলার। সিভাম মাভির করা তৃতীয় ওভারে ২টি ছয় ও ৪টি চারে ২৮ রান তোলেন এই ইংলিশ ব্যাটসম্যান। তবে তা বেশি সময় ধরে রাখতে পারেননি রাহুল। পঞ্চম ওভারে এন্ড্রে রাসেলের শর্ট লেংথের পঞ্চম বলে এজ হয়ে উইকেট-রক্ষক দিনেশ কার্তিকের হাতে ধরা পরেন ১৫ বলে ২৭ রান করে।

এরপর দ্রুতই ফিরেছেন অধিনায়ক আজিঙ্কা রাহানে। অস্টম ওভারে ১১ রান করা রাহানের উইকেট ভেঙ্গে দেন কুলদিপ যাদব। অন্যপ্রান্তে থাকা বাটলারকেও ফেরান কুলদিপ যাদব। ১০ম ওভারে একটি শর্ট বল সুইপ করতে গিয়ে জেভন সার্লেসের তালুবন্ধি হবার আগে ২২ বলে ৩৯ রান করেন বাটলার। পরের ওভারেই সাঞ্জু স্যামসনকে এলবিডব্লিউর ফাঁদে ফেলেন সুনিল নারাইন। এরপরই ধস নামে রাজস্থান ব্যাটিং লাইন-আপে। ১২তম ওভারে স্টুয়ার্ট বিন্নিকে ফিরিয়ে নিজের তৃতীয় উইকেট তুলে নেন কুলদিপ যাদব।

পরের দুই ওভারে গৌতমকে ফিরিয়েছেন সিভাম মাভি আর বেন স্টোকসকে ফিরিয়েছেন কুলদিপ যাদব। শেষ সময়ে জয়দেব উনাদকাটের ১৮ বলে ২৬ রানের ইনিংসে ১৪২ রানেই অল-আউট হয় রাজস্থান। ছোট লক্ষ তাড়া করতে নেমে স্বভাবসূলভ আক্রমনাত্মক শুরু করেন সুনিল নারাইন। প্রথম বলেই ছয় দিয়ে শুরু করে মোট ২১ রান তোলেন এই ক্যারিবিয়ান। ফিরেছেন পরের ওভারেই। যে গৌতমের প্রথম ওভারে ঝড় তুলেছেন, বেন স্টোকসের বলে তার হাতেই তালুবন্ধি হন। ৭ বলে ২১ রান করে নারাইন ফিরলে দ্রুতই তার পথ অনুসরণ করেন রবিন উথাপ্পা। বেন স্টোকসের শর্ট বলে রাহুল ত্রিপাঠিকে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন মাত্র ৪ রান করে।

তবে অন্যপ্রান্তে থেকে ক্রিস লিন নিয়মিত বাউন্ডারি তুলে নেয়ায় চাপে পরতে হয়নি কলকাতাকে। দলীয় ৬৯ রানে ইস সোদির বলে এলবিডব্লিউ হয়ে ফেরেন নিতিশ রানা। ১৭ বলে ২১ রান করে রানা ফিরলে দলের হাল ধরেন দিনেশ কার্তিক। ক্রিস লিনের সাথে জুটি গড়ে দলকে এগিয়ে নিয়ে গেছেন। ৩১ বলে অপরাজিত ৪১ রানে দলতে জিতিয়েই থেমেছেন অধিনায়ক। তবে তার আগে, কলকাতাকে আরেকটা ধাক্কা দেন বেন স্টোকস। ১৬তম ওভারে স্টোকসের শর্ট বলে ডিপে থাকা আনুরিত সিংকে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন ৪২ বলে ৫ চার ও ১ ছয়ে ৪৫ রানের দুর্দান্ত ইনিংস খেলে।

শেষ সময়ে এন্ড্রে রাসেলের ৫ বলে ১১ রানের ক্যামিওতে ৬ উইকেটে জয় পায় কলকাতা নাইট রাইডার্স। ১৪ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের তৃতীয় স্থানে থাকলেও বাকি থাকা একটি ম্যাচ জিতলেই প্লে-অফ নিশ্চিত করতে পারবে কলকাতা। আর তা না হলে, সবটা ভাগ্যের হাতে ছেড়ে দিতে হবে শাহরুখ খানের দলকে। অবশ্য বাকি থাকা ম্যাচটি যখন শীর্ষ দল হায়দ্রাবাদ তখন একটু চাপেই থাকবে কলকাতা।

অন্যদিকে ম্যাচ হেরে গেলেও ভাগ্যে আর পরের ম্যাচের ফল মিলে গেলেই প্লে-অফ খেলার সুযোগ রয়েছে রাজস্থানের। ব্যাঙ্গলুরুর বিপক্ষে বাকি থাকে ম্যাচটি জিতে রান রেটের দিকে তাকিয়ে থাকতে হবে দলটিকে।

পরবর্তী ম্যাচে রাত ৮টা ৩০ মিনিটে ঘরের মাঠে কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের বিপক্ষে মাঠে নামবে মুম্বাই ইন্ডিয়ানস।

বাংলা ইনিশিয়েটরে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।