প্রচ্ছদ » বাংলাদেশ » সাম্য ও সম্প্রীতির বন্ধনে সার্বজনীন হোক ঈদ উৎসব

সাম্য ও সম্প্রীতির বন্ধনে সার্বজনীন হোক ঈদ উৎসব

প্রকাশ : ১৫ জুন ২০১৮৮:৩০:২১ অপরাহ্ন


সম্পাদকের কার্যালয় থেকে


ঈদ মানে আনন্দ আর এবারের ঈদে বাড়তি আনন্দ যুক্ত করেছে বিশ্বকাপ ফুটবল। ফুটবল জোয়ারে যখন মেতেছে সারা বিশ্ব ঠিক তখনি এসেছে মুসলিম বিশ্বের সর্ববৃহৎ ধর্মীয় উৎসব পবিত্র ঈদুল ফিতর। ঈদ শান্তি, সহমর্মিতা ও ভ্রাতৃত্ববোধের অনুপম শিক্ষা দেয়। সাম্য, মৈত্রী ও সম্প্রীতির বন্ধনে আবদ্ধ করে সকল মানুষকে।

ঈদকে কেন্দ্র করে তৈরি হওয়া সম্প্রীতির বন্ধন দৃঢ় হোক। ভ্রাতৃত্ব-প্রেম-মমতা ছড়িয়ে পড়ুক হৃদয়ে হৃদয়ে। দেশের প্রতিটি নাগরিকের মধ্যে সুসম্পর্ক বজায় রাখা প্রত্যেকটা নাগরিকের দায়িত্ব। দেশকে সামনে এগিয়ে নিয়ে যেতে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির কোন বিকল্প নেই। ঈদ আমাদের যে ভ্রাতৃত্বের শিক্ষা দেয় সেটা পালন করতে হবে বছরজুড়ে।

তাই আসুন জাতিভেদ ভুলে ঈদের খুশিতে শামিল হই সবাই। আসুন আমরা সবাই মিলেমিশে বাস করি এবং একজন আরেকজনের পাশে দাঁড়াই। চলুন এই পবিত্র আনন্দের দিনে আমরা শপথ করি, সাম্প্রদায়িকতা ভুলে এদেশের প্রতিটি মানুষকে শুধুই মানুষ হিসেবে ভাববো। গড়ে তুলব সত্যিকারের অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ।

অসাম্প্রদায়িকতার বন্ধনে আবদ্ধ হোক পুরো  বাংলাদেশ। প্রতিটি মানুষ হাসিমুখে বেঁচে থাকুক, বেঁচে থাকুক তাদের বিশ্বাস, ঐতিহ্য, সংস্কৃতি। বাংলাদেশ হোক বৈচিত্র্যময়। ঈদ মানে আনন্দ। আর এই আনন্দ প্রত্যেকের জন্য। সকল জাতি, ধর্ম, বর্ণ নির্বিশেষে এই ঈদ সবার জন্য বয়ে নিয়ে আসুক অনাবিল আনন্দ এই প্রত্যাশা আমার। দেশের প্রতিটি মানুষ হাসিমুখে একে অন্যকে বলুক – ঈদ মোবারক।

বাংলা ইনিশিয়েটরের সকল লেখক, পাঠক, শুভানুধ্যায়ীদের জানাই ঈদ মোবারক।

সবুজ শাহরিয়ার খান
সম্পাদক
বাংলা ইনিশিয়েটর

বাংলা ইনিশিয়েটরে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।