প্রচ্ছদ » অনিয়ম » অপরিকল্পিত রাস্তা খননঃ রাজধানীতে নেমে এসেছে দূর্ভোগ

অপরিকল্পিত রাস্তা খননঃ রাজধানীতে নেমে এসেছে দূর্ভোগ

প্রকাশ : ১৫ জুন ২০১৮১১:০৬:৩৫ অপরাহ্ন

খাতুনে জান্নাত


আগামীকাল সারাদেশে পালিত হবে পবিত্র ঈদুল ফিতর। তবে ঈদের সময়েও অপরিকল্পিত রাস্তা খননের জন্য নাগরিকদের পোহাতে হবে বেশ দূর্ভোগ।

ঢাকা শহরের প্রায় প্রতিটি এলাকায় রমযানের আগে শুরু হয়েছিলো খনন কাজ। ফার্মগেট, কারওয়ান বাজার, শাহবাগ, মিরপুরসহ প্রায় সব এলাকায়ই গত এক মাস ধরে চলেছে রাস্তার কাজ। তবে একমাসেও সে কাজ শেষ হয় নি। তাই নগরবাসীকে ঈদ করতে হবে এ ধরণের অব্যবস্থাপনার ফলে সৃষ্ট দূর্ভোগ মাথায় নিয়েই।

মিরপুর ১৪ এর ইব্রাহিমপুর এলাকার বাজারের সামনে গতকাল দেখা যায় ভয়াবহ দৃশ্য। একদিকে দু-তিনটে গরুর বিষ্টা জড় করে রাখা, অন্যদিকে সে রাস্তায় জমে থাকা নোংরা পানি। হেঁটে যেতে হলে ময়লা পানিতে পা ভিজিয়ে তবে যেতে হয়। এছাড়া গরুকে খাওয়ানোর খড়, গরুর বিষ্টা, পচা তরকারি, মাছের আঁশ – সব মিলিয়ে পানির অবস্থা ভয়াবহ।

এলাকার একজন বলেন, “দেখে বিশ্বাস হয় না ঢাকা শহরের এই অবস্থা হতে পারে। রাস্তা খোড়াখুড়ি চলছে তো চলছেই। এ কারণেই তো পানি জমে এই অবস্থা। আজ একমাসের উপরে হয়ে গেল রাস্তা ঠিক করার নাম নেই। জানি না কবে এই যন্ত্রণা শেষ হবে।”

আরেক পথচারী বলেন, “এই রাস্তা দিয়ে মানুষ ভালোভাবে হাঁটতেই পারে না, তার উপর বৃষ্টি হলে তো কথাই নেই! পিচ্ছিল হয়ে চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়ে পুরো রাস্তা। এই রাস্তা দিয়ে এখন আমরা ইদের দিন নামায পড়তে যাব? বাচ্চারাই বা নতুন জামা পরে বের হবে কী করে? পুরো ঈদটাই মাটি হয়ে গেল!”

গতমাসে ইব্রাহিমপুরের এই রাস্তা নিয়ে বাংলা ইনিশিয়েটর থেকে একটি রিপোর্ট প্রকাশিত হয়। তারপরেও রাস্তাটি যেমন ছিল তেমনই আছে এখনও। জনগণ প্রশাসনের কাছে একটিই দাবী করেছে – তারা যাতে ইদের সময় স্বাভাবিক একটি সড়ক পায়। কিন্তু ঈদের আগে তা সম্ভব নয়। ঈদের পরে কবে সম্ভব হবে কিংবা আদৌ সম্ভব কিনা সে ব্যাপারেও রয়েছে নগরবাসীর সন্দেহ।

বাংলা ইনিশিয়েটরে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।