প্রচ্ছদ » খেলাধুলা » দিনটা আজ উরুগুয়েরঃ জয়, সাথে গ্রুপ চ্যাম্পিয়নের তকমা!

দিনটা আজ উরুগুয়েরঃ জয়, সাথে গ্রুপ চ্যাম্পিয়নের তকমা!

প্রকাশ : ২৬ জুন ২০১৮২:১৩:০০ পূর্বাহ্ন

খাতুনে জান্নাত | বাংলা ইনিশিয়েটর


শেষ ষোলো আগেই নিশ্চিত হয়েছিলো সুয়ারেজদের। তবে আজকের খেলার সাথে সাথে নিশ্চিত হয়ে গেলো গ্রুপ চ্যাম্পিয়ানশিপও। ফিফা ২০১৮ বিশ্বকাপের স্বাগতিক দল রাশিয়াকে ৩-০ গোলে হারিয়ে এই তকমা নিজেদের করে নেয় উরুগুয়ে। আর স্বাগতিকরা জায়গা করে নেয় গ্রুপ রানার্স আপদের কাতারে। ইতিহাসে এই প্রথমবার বিশ্বকাপের সবগুলো ম্যাচ জিতে নক-আউট পর্বে উঠেছে উরুগুয়ে।

সুয়ারেজের জন্যেও ম্যাচটা কম গুরুত্বপূর্ণ নয়! আজকের ম্যাচে প্রথম গোলের মাধ্যমে উরুগুয়ের এ তারকা রাশিয়া বিশ্বকাপে তার সাত নম্বর গোলটি করেন। আর এক গোল করলেই ছুঁয়ে ফেলবেন উরুগুয়ের হয়ে বিশ্বকাপে সর্বোচ্চ গোলদাতা অস্কার মিগুয়েজকে। সেই রেকর্ডকে ছোঁয়ার আশা আরও একটু তরান্বিত করে দিলো আজকের ম্যাচের এই গোলটি।

ম্যাচের ৯ মিনিটে উরুগুয়ে মিডফিল্ডার রদ্রিগো বেন্তানকুরকে বক্সের মাথায় ‘ডি’র মধ্যে ফেলে দিয়েছিলেন রাশিয়ার ইউরি গাজিনিস্কি। ফ্রি–কিক পায় উরুগুয়ে। ২০ গজ দূর থেকে বেশ চালাকি করে শট নিয়েছিলেন সুয়ারেজ। রাশিয়ান ‘মানবদেয়াল’-এর ডান পাশ দিয়ে দূরের পোস্টটা দেখা যাচ্ছিল। শট নেওয়ার আগেই এডিনসন কাভানি মানবদেয়ালের পাশ থেকে সরে যাওয়ায় সরু কিন্তু ফাঁকা পথটুকু দিয়ে বল জালে পাঠাতে কোনো সমস্যা হয়নি সুয়ারেজের।

১০ মিনিটে উরুগুয়ে এগিয়ে গেলেও রাশিয়ার আক্রমণের ধার কমেনি। প্রথমার্ধের শুরু থেকেই তারা আক্রমণাত্মক খেলেছে। এতে কিছুটা অগোছালো হয়ে পড়েছিল তাদের মাঝমাঠ। ডিয়েগো লাক্সাল্ট-তোরেইরাদের নিয়ে গড়া উরুগুয়ে মিডফিল্ড এই সুযোগটাই নিয়েছে। মাঝমাঠ থেকে খেলাটা গুছিয়ে তারা বেশ কয়েকবার হানা দিয়েছে রাশিয়ার রক্ষণভাগে। এরই ধারাবাহিকতায় এসেছে দ্বিতীয় গোল। ২৩ মিনিটে কর্নার থেকে বল ‘ক্লিয়ার’ করতে পারেনি রাশিয়ার রক্ষণ। সেই সুযোগে বক্সের বাইরে থেকে উরুগুয়ে মিডফিল্ডার লাক্সাল্টের শট রাশিয়ার ফরোয়ার্ড ডেনিস চেরিশভের পায়ে লেগে জালে জড়ায়।

চেরিশভের এই ভুলটুকু রাশিয়ার কোচ স্তানিস্লাভ চেরচেশভ হয়তো ক্ষমা করতে পারেননি। রাশিয়ার হয়ে ২ ম্যাচে ৩ গোল করা এই ফরোয়ার্ডকে তিনি ৩৮ মিনিটেই তুলে নেন! ঠিক তার দুই মিনিট আগে দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেখে মাঠ ছাড়েন রাশিয়ার রাইটব্যাক ইগর সোমোলিঙ্কভ। ১০ জনে পরিণত হওয়ার পর কমে এসেছে রাশিয়ার আক্রমণের ধার। বরং দ্বিতীয়ার্ধে কাভানি-সুয়ারেজরা বেশ কিছু গোলের সুযোগ নষ্ট করেছেন। তবে ৯০ মিনিটে রাশিয়ান বক্সে জটলার মধ্যে থেকে ঠিকই গোল আদায় করে নেন কাভানি।

তিন ম্যাচেই কোনো গোল হজম না করে বিজয়ী হওয়ায় উরুগুয়ে ৯ পয়েন্ট নিয়ে উঠলো দ্বিতীয় রাউন্ডে। সেই সঙ্গে গ্রুপ ‘এ’ এর চ্যাম্পিয়ানও তারা।আর তিন ম্যাচের দুইটিতে বিজয়ী হয়ে ৬ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপ ‘এ’ এর রানার্স আপ দল হয়েছে স্বাগতিক রাশিয়া।

বাংলা ইনিশিয়েটরে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।