প্রচ্ছদ » খেলাধুলা » নাটকীয় ড্র-এ শেষ হলো স্পেন-মরক্কোর লড়াই

নাটকীয় ড্র-এ শেষ হলো স্পেন-মরক্কোর লড়াই

প্রকাশ : ২৬ জুন ২০১৮১১:৫৩:১৩ পূর্বাহ্ন

খাতুনে জান্নাত | বাংলা ইনিশিয়েটর


আজ কালিনিনগ্রাদে এক নাটক মঞ্চায়ন হয়েছে বলা যায়। শুধু মঞ্চটাই ছিল না। কিন্তু বিশ্বকাপ আসরে মঞ্চ ছাড়াই যে কত নাটক হয়, কত কত নাটকীয় ঘটনা ঘটে, তার কি কোনো ইয়ত্তা আছে?

এবারের বিশ্বকাপে মজার ব্যাপার হলো, প্রথম নব্বই মিনিটের খেলায় যাদের হার নিশ্চিত, শেষ পাঁচ-ছয় মিনিটে তারাই দুই-তিনটা গোল করে বিজয়ী দল হয়ে যায়! গতকাল স্পেন মরক্কোর লড়াইয়েও এমটাই ঘটেছে। যা স্পেনকে খাদের কিনার থেকে ফিরিয়ে এনে ম্যাচ ড্র তো করেছেই, এবং ওই গোলের মাধ্যমে স্পেন হয়েছে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন!

কালিনিনগ্রাদে স্পেন-মরোক্কো ম্যাচটা ২-২ গোলে ড্র হয়েছে। ১৪ মিনিটে মরক্কোকে এগিয়ে নেন বুতাইব। ১৯ মিনিটে স্পেনকে সমতায় ফেরান ইসকো। ৮১ মিনিটে মরক্কোকে এগিয়ে নেন এন-নেসিরি। ৯০ মিনিটের যোগ করা সময়ে স্পেনকে উদ্ধার করেন আসপাস। যদিও প্রথম সুযোগটা নেয় মরক্কো। মরক্কের জন্য সেই কাঙ্খিত মুহূর্ত আসে ১৪ মিনিটে। মাঝমাঠে ইনিয়েস্তা-রামোসের দেওয়া-নেওয়ার ভুল বোঝাবুঝিতে বলটা ছোঁ মেরে বক্সে চিতার গতিতে ঢুকে পড়ল মরক্কোর ফরোয়ার্ড খালদি বুতাইব। পেছন থেকে পিকে ঝোড়ো গতিতে দৌড়েও পারেনি বুতাইবকে আটকাতে। ডেভিড ডি গেয়াকে হারিয়ে বল পাঠিয়ে দিলেন জালে। স্পেন অবশ্য গোলটা শোধ করতে সময় নিল ৫ মিনিট। ইনিয়েস্তার পাসে ইস্কোর ফিনিশিং। ২৫ মিনিটে আবারও স্পেনের হৃৎকম্প বাঁড়িয়ে দিয়েছিল বুতাইব। মাঝ মাঠের থ্রো-ইনে দুর্দান্ত স্প্রিন্টে স্পেনের তিন ডিফেন্ডারকে হারিয়ে ঢুকে পড়েছিলেন বক্সে। শেষ মুহূর্তে হারাতে পারেননি ডি গেয়াকে।

ড্র হলেও স্পেনের চিন্তা নেই। নির্ভাবনায় চলে যাবে দ্বিতীয় রাউন্ডে, এটা যখন ভাবতে শুরু করেছেন স্প্যানিশ সমর্থকেরা, তখনই তাদের মাথাব্যথা হয়ে দাঁড়াল এন-নেসিরির মাথা! ফয়সাল ফজরের কর্নারে নিঁখুত হেড। ৮১ মিনিটে ২-১ গোলে পিছিয়ে থাকা স্পেন পারবে ফিরতে? ৯০ মিনিটেও উত্তর পাওয়া যায়নি। যোগ করা সময়ে ১ মিনিট শেষ হতে চলেছে। ঠিক এ সময়ে আসপাসের ফিনিশিং। সেই গোল নিয়ে আরেক নাটক। গোল হবে কি হবে না, দুই দলের খেলোয়াড় ও টিম ম্যানেজমেন্টের কথার লড়াই। স্নায়ুর ওপর দিয়ে ঝড় বইয়ে যাওয়া মুহূর্ত পেরিয়ে অবশেষে স্পেনের মুখে হাসি।

বল দখলে কিন্তু এগিয়ে ছিল স্পেনই। স্পেনের ৭৫ শতাংশ বল দখল আর ৭৪০ পাসের বিপরীতে মরক্কো পুরো ৯০ মিনিটে ২৫০ পাসও দিতে পারেনি। অথচ তিনবার লক্ষ্যে শট নিয়ে দুবারই গোল পেয়েছে। যে একবার মরক্কো পারেনি, শুধু ভাগ্যের ছোঁয়া পায়নি বলে। ৫৬ মিনিটে সোফিয়ান আমরাবাতের শটটা ফিরেছে ক্রসবারে লেগে। মরক্কো যেন স্পেনের কাছে এই বার্তাই দিতে চাইলো যে, তোমরা এখনও সুযোগকে যথাযথভাবে ব্যবহার করতে শেখো নি! আসছে ম্যাচগুলোতে স্পেনের টিকে থাকতে হলে তাই সুযোগকে যথাযথভাবে ব্যবহার করতে শিখতে হবে।

আজ বাংলাদেশ সময় রাত আটটায় একইসঙ্গে সোচি এবং মস্কোতে অস্ট্রেলিয়া বনাম পেরু ও ডেনমার্ক বনাম ফ্রান্সের খেলা অনুষ্ঠিত হবে। সেখানেও কি এমন কোনো মাটকের মঞ্চায়ন হবে?

বাংলা ইনিশিয়েটরে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।