প্রচ্ছদ » খেলাধুলা » হলুদ কার্ডের হিসাবে নক-আউট পর্বে জাপান!

হলুদ কার্ডের হিসাবে নক-আউট পর্বে জাপান!

প্রকাশ : ২৮ জুন ২০১৮১১:২৬:০০ অপরাহ্ন

শাফিন রহমান | বাংলা ইনিশিয়েটর

আজ দুটি ম্যাচ শুরু হবার আগে জাপান, কলাম্বিয়া, সেনেগাল তিন দলেরই সুযোগ ছিল। তবে তিন দলের মধ্যে সবচেয়ে কম পয়েন্ট ছিল কলম্বিয়ার(৩)। আর সেই কলম্বিয়াই সেনাগালকে হারিয়ে হয়েছে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন। অন্যদিকে শীর্ষে থাকা জাপান হেরেছে দুর্বল পোল্যান্ডের কাছে। তবে পোল্যান্ড ও জাপানের ম্যাচে জাপান হারলেও টপ সিক্সটিনে জায়গা তাদেরই হয়েছে অবশেষে।

জাপান ও সেনেগালের পয়েন্ট সমান, এমনকি গোল দেয়া ও খাওয়ার হিসাবেও সমান দল দুইটি। তাই গ্রুপ রানার্স আপ ঘোষণার জন্য বিবেচনায় নেয়া হয় ফেয়ার প্লে অর্থাৎ কোন দলের হলুদ কার্ড কতটি। সেই হিসাবে কম হলুদ কার্ড নিয়ে নক-আউটে উঠে গেছে জাপান। ৫৯ মিনিটে বেদনারেকের গোলে এগিয়ে যায় পোল্যান্ড। যা শেষ পর্যন্ত তাদেরকে জয়ের পথে নিয়ে যায়।

খেলা দুই দলেরই সমান সমান লড়াই হয়েছে। জাপানের বল পসেশন ছিলো ৫৫% আর অন্যদিকে পোল্যান্ডের বল পসেশন ছিলো ৪৫%। ৫৮ মিনিটে কারাজাওয়ার ফ্রি কিক থেকে তার বল খুজে পায় বেদনারেককে। গোলের কাছেই দাড়িয়ে থাকা বেদনারেক, সুন্দর জায়গায় খুজে পান এবং খুব সহজেই বল ঢুকিয়ে দেন জালের ভিতর। এরপর দুইদলই বল বেশ কয়েকবার সুযোগ তৈরী করেও কেউই শেষ পর্যন্ত গোলের দেখা পায়নি।

শেষের দিকে তো দুই দলই যেন শেষ বাঁশির অপেক্ষায় ছিল। সময়ের অপচয় করে ম্যাচের ফল বহাল রাখতেই চেয়েছে দুই দল। তার জন্য অবশ্য জাপানের কাউকে হলুদ কার্ড দেখতে হয়নি। তা না হলে জাপানের আর নক-আউট পর্বে যাওয়া হতো না। কেননা সেনাগালের সমান পয়েন্ট থাকায় হলুদ কার্ড হিসাবেই এগিয়ে গেছে জাপান। পোল্যান্ড তাদের শেষ ম্যাচ জিততে চলেছে, আর অন্য ম্যাচের ফল যেনে জাপান বুঝতেই পেরেছিল হেরেও তারাই যেতে চলেছে নক-আউট পর্বে। তাই ম্যাচের ফল না বদলে সময় শেষ করার দিকেই মন দিয়েছিল দুই দল। আর অন্যদিকে বিদায় বেলায় জাপানকে হারিয়ে ভক্তদের শেষ সান্তনা দিয়ে গেল পোল্যান্ড ভক্তরা।

বাংলা ইনিশিয়েটরে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।